বিদ্যুতের উপর ২৩ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি করছে যোগী সরকার, সমালোচনায় সরব অখিলেশ যাদব

অখিলেশ বলেন, ‘মূল্যবৃদ্ধির জেরে এমনিতেই বিপাকে রয়েছে সাধারণ মানুষ। এরপরও বিজেপি সরকার যদি বিদ্যুতের শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব গ্রহণ করে, তাহলে তা জনগণের দুর্ভোগ বাড়িয়ে তুলবে।’
অখিলেশ যাদব ও যোগী আদিত্যনাথ
অখিলেশ যাদব ও যোগী আদিত্যনাথফাইল ছবি সংগৃহীত

বিদ্যুতের শুল্ক ২৩ শতাংশ বৃদ্ধির যে প্রস্তাব গ্রহণ করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার, তাতে বিপাকে পড়বেন সাধারণ মানুষ। বুধাবার, এক বিবৃতিতে এমনই দাবি করেছেন সমাজবাদী পার্টি (SP)-র সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব।

রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ বলেন, ‘মূল্যবৃদ্ধির জেরে এমনিতেই বিপাকে রয়েছে সাধারণ মানুষ। এরপরও বিজেপি সরকার যদি বিদ্যুতের শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব গ্রহণ করে, তাহলে তা জনগণের দুর্ভোগ আরও বাড়িয়ে তুলবে।’

সমাজবাদী পার্টির প্রধান বলেন, ‘বিদ্যুতের বিলের উপর অতিরিক্ত ২৩ শতাংশ শুল্ক চাপালে সবথেকে সমস্যায় পরবেন গার্হস্থ্য ব্যবহারকারীরা। মূল্যবৃদ্ধির উপর আরও একটি বোঝা চাপাতে চলেছে বিজেপি।’

তিনি বলেন, ‘বিদ্যুতের উপর শুল্ক বৃদ্ধির ফলে সাধারণ মানুষ, কৃষক, ব্যবসায়ীরা বিপাকে পড়বেন। সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়বেন দরিদ্র, নিম্ন মধ্যবিত্ত এবং মধ্যবিত্ত পরিবার। কিন্তু, মনে হচ্ছে দরিদ্রদের উপর শুল্ক বৃদ্ধির প্রভাব নিয়ে কম উদ্বিগ্ন বিজেপি। একের পর এক সরকারের নীতি সাধারণ মানুষকে সংকটে ফেলে দিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘বিধানসভা নির্বাচনের সময় কৃষকদের সেচের জন্য বিনামূল্যে বিদ্যুতের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিজেপি। কিন্তু, সেই প্রতিশ্রুতিটি নিছক 'জুমলা' (বিবৃতি) হিসাবে পরিণত হয়েছে। আগেও এই ধরণের জুমলা দিয়েছে বিজেপি। ইতিমধ্যেই খাদ্যপণ্য, রান্নার তেল, জ্বালানি, ডাল ও খাদ্যশস্যের মূল্যবৃদ্ধির জেরে সাধারণ মানুষ বিরক্ত। এখন বেতনভোগী নিম্ন মধ্যবিত্ত এবং মধ্যবিত্তের মাসিক বাজেট নষ্ট করার জন্য শেষ চেষ্টা চালাচ্ছে বিজেপি।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in