২৬ ফেব্রুয়ারি দিল্লি সীমান্তবর্তী অঞ্চলে আন্দোলনরত কৃষকদের সমাবেশের পরিকল্পনা

সরকারের পক্ষ থেকে আলোচনার নতুন কোনো প্রস্তাব আসেনি - হান্নান মোল্লা
২৬ ফেব্রুয়ারি দিল্লি সীমান্তবর্তী অঞ্চলে আন্দোলনরত কৃষকদের সমাবেশের পরিকল্পনা
গতকাল হরিয়ানার কাটিহালে কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে রেল রোকোছবি এ আই কে এস ফেসবুক পেজের সৌজন্যে

কৃষক আন্দোলনের অবস্থানের তিন মাস পূর্তি উপলক্ষ্যে বড়ো সমাবেশ করতে চলেছে সংযুক্ত কিষাণ ইউনিয়ন। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি এই সমাবেশ করার কথা ভাবা হচ্ছে। দিল্লির সীমান্তবর্তী কোনো অঞ্চলেই এই সমাবেশ হবে বলে জানা গেছে। আন্দোলনরত কৃষকদের পক্ষে এআইকেএস-এর হান্নান মোল্লা জানিয়েছেন – কৃষক আন্দোলন থেমে গেছে বলে যারা ভাবছেন তাঁরা ভুল ভাবছেন। আমরা প্রতিদিন বিভিন্ন জায়গায় মহাপঞ্চায়েত করে মানুষের কাছে যাচ্ছি।

এর আগে গত ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লির ট্র্যাক্টর র‍্যালি ঘিরে বেশ কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছিলো। এর পর প্রশাসনিক তরফে একাধিক আন্দোলন স্থল ঘিরে বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করা হয়। নতুন করে ব্যারিকেড তৈরি করা হয়। গাজীপুর সীমান্তে প্রচুর নিরাপত্তাকর্মী মোতায়েন করা হয়। যদিও তার পরেও আন্দোলনকে দমানো যায়নি।

গতকাল এই প্রসঙ্গে হান্নান মোল্লা বলেন – এই সরকার সবসময় যে কোনো আন্দোলন ভেঙে দিতে চায়। যে কোনো আন্দোলনে বাধা এবং প্রতিবন্ধকতা থাকে সেটাও আমাদের জানা। গত ২৬ জানুয়ারির ঘটনার পরেও আমরা আমাদের একতার পরিচয় দিয়েছি।

সরকারের সঙ্গে আলোচনার প্রসঙ্গে হান্নান মোল্লা জানিয়েছেন – আমরা সবসময় আলোচনার জন্য প্রস্তুত। আমরা সরকারের প্রস্তাবের অপেক্ষা করছি। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সরকারের কাছ থেকে কোনো নতুন প্রস্তাব আসেনি আর আমরা সরকারের আগের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছি। যদিও সরকারের সঙ্গে আলোচনা হোক বা না হোক আমাদের আন্দোলন তাতে থেমে যাবে না।

উল্লেখ্য আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি দিল্লি সীমান্তে কৃষকদের অবস্থানের তিন মাস পূর্ণ হবে। সেই দিনকে মাথায় রেখে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার পক্ষ থেকে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি সমাবেশের প্রস্তুতি শুরু করছে আন্দোলনের যুক্ত মঞ্চ।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in