'শারীরিক অসুস্থতা' - NDA-র ভার্চুয়াল বৈঠক এড়ালেন চিরাগ পাসোয়ান - LJP র অবস্থান ঘিরে প্রশ্ন বিহারে
এলজেপি প্রধান চিরাগ পাসোয়ানফাইল ছবি সংগৃহীত

'শারীরিক অসুস্থতা' - NDA-র ভার্চুয়াল বৈঠক এড়ালেন চিরাগ পাসোয়ান - LJP র অবস্থান ঘিরে প্রশ্ন বিহারে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভাপতিত্বে এনডিএ'র সভায় লোক জনশক্তি পার্টিকে (এলজেপি) আমন্ত্রণ জানানোয় বিজেপির ওপর বেজায় ক্ষুব্ধ জোটসঙ্গী জনতা দল ইউনাইটেড (জেডিইউ)। দলের তরফ থেকে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়, ওই সভাতে এলজেপি সভাপতি চিরাগ পাসোয়ান উপস্থিত থাকলে জেডিইউয়ের কোনো নেতা সভায় যাবে না। জেডিইউয়ের এই সিদ্ধান্তে অস্বস্তিতে পড়ে বিজেপি। পরিস্থিতি এমন জায়গায় দাঁড়ায় যে স্বাস্থ্যের কারণ দেখিয়ে শনিবার অনুষ্ঠিত হওয়া ওই সভায় অনুপস্থিত থাকেন সদ‍্য প্রয়াত প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ানের ছেলে চিরাগ পাসোয়ান।

যদিও অন্য একটি সূত্র অনুসারে, পিতা - প্রয়াত রামবিলাস পাসোয়ানের মন্ত্রিত্ব এখনও পর্যন্ত চিরাগ পাসোয়ানকে না দেওয়ায় তিনি বেজায় ক্ষুব্ধ। ফলে আপাতত তিনি এন ডি এ সঙ্গ এড়াচ্ছেন। এই বিষয়ে এলজেপি-র অন্য নেতারাও বিশেষ কিছু জানেন না। এই মুহূর্তে লোকসভায় এলজেপির ৬ সাংসদ থাকলেও বাবার ছেড়ে যাওয়া আসনে মন্ত্রীত্বের দাবিদার চিরাগ পাসোয়ান। যে দাবী এখনও পূরণ করেনি এনডিএ।

গত ২০ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী চিরাগ পাসোয়ানকে চিঠি লিখে এনডিএ'র সভায় উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানান। চিঠিতে তিনি লেখেন, সংসদের বাজেট অধিবেশনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য এই সভা ডাকা হয়েছে। শনিবারের সভায় অনুপস্থিত থাকার পর রবিবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদপত্রে চিরাগ পাসোয়ান জানান, "আমি অসুস্থ ছিলাম। তাই সভায় অংশগ্রহণ করতে পারিনি।"

ওই একই সংবাদপত্রে শনিবার জেডিইউ নেতা কে সি ত‍্যাগী জানিয়েছেন, "প্রধানমন্ত্রী নিজেই বিহারে এসে ঘোষণা করেছিলেন নীতিশ কুমারের নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটে বিজেপি, জেডিইউ, ভিআইপি এবং এইচএএম রয়েছে। বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন বিহারে এনডিএ'র আগের জোট ভেঙে গিয়েছে। এনডিএ'কে মারাত্মকভাবে আক্রমণ করা চিরাগ এখন কীভাবে এনডিএ'র অংশ হতে পারে?"

বিহার বিধানসভা নির্বাচনের আগে এনডিএ ছেড়ে বেরিয়ে এসে পৃথকভাবে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল চিরাগ পাসোয়ানের এলজেপি। চিরাগ পাসোয়ানের মূল লড়াই ছিল নীতিশ কুমারের বিরুদ্ধে। এনডিএ জোটের যে আসনগুলোতে জেডিইউ প্রার্থী দিয়েছিল, সেই সবকটি আসনে প্রার্থী দিয়েছিল এলজেপি। নীতিশ-মুক্ত বিহার গঠনের ডাক দিয়েছিলেন চিরাগ পাসোয়ান। নির্বাচনে এলজেপি মাত্র একটি আসনে জয়লাভ করলেও জেডিইউয়ের আসন সংখ্যা ৭১ থেকে নেমে এসে ৪৩ হয়েছিল।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in