চিটফান্ডের মাধ্যমে ৮৭০ কোটি টাকা প্রতারণা! ১৭১ কোটি টাকা জরিমানা ও ২৭ বছরের জেল 'পাজি' মালিকদের

২০০৮-এর জুলাই থেকে ২০০৯-এর সেপ্টেম্বরের মধ্যে পাজি মার্কেটিং কোম্পানি বিভিন্ন প্রকল্প চালু করে। এরপর দ্বিগুণ-তিনগুণ টাকা ফেরত দেওয়ার নামে সাধারণ মানুষের থেকে প্রায় ৮৭০.১০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়।
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

চিটফান্ড কোম্পানি খুলে আমানতকারীদের ৮৭০.১০ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগে, পাজি মার্কেটিং কোম্পানির দুই ডিরেক্টরকে ২৭ বছরের কারাদণ্ড এবং ১৭১.৭৪ কোটি টাকার জরিমানা করেছে তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুরের একটি আদালত।

এক বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই (CBI) জানিয়েছে, কোম্পানির দুই ডিরেক্টর কে মোহনরাজ এবং কমলাভল্লিকে ২৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে ৪২.৭৬ কোটি টাকা জরিমানা করেছে আদালত।

একইসঙ্গে, পাজি ফরেক্স ট্রেডিং ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড, পাজি ট্রেডিং ইনকর্পোরেটেড এবং পাজি মার্কেটিং কোম্পানি - এই তিন সংস্থাকেই আলাদা করে ২৮.৭৪ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে, এই তিন সংস্থার নামে সাধারণ মানুষের থেকে কোটি কোটি টাকা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছিল ওই দুই ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মাদ্রাজ হাইকোর্টের নির্দেশে ২০১১ সালের ১৫ জুন তদন্ত শুরু করে সিবিআই। পূর্ণাঙ্গ তদন্তের পর ২০১১ সালের ৭ অক্টোবর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে সিবিআই। ১১ বছর পার করে সেই মামলারই রায় দিল আদালত।

অভিযোগ ছিল, ২০০৮-এর জুলাই থেকে ২০০৯-এর সেপ্টেম্বরের মধ্যে পাজি মার্কেটিং কোম্পানি বিভিন্ন প্রকল্প চালু করে। এরপর, দ্বিগুণ থেকে তিনগুণ টাকা ফেরত দেওয়ার নাম করে সাধারণ মানুষের থেকে প্রায় ৮৭০.১০ কোটি টাকারও বেশি হাতিয়ে নেওয়া হয়। আর, কোম্পানির পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়, খুব অল্প সময়ের মধ্যে আমানতকারীরা একটি বিশাল লভ্যাংশ হাতে পাবেন।

একইসঙ্গে, www.paazeemarketing.com নামে সংস্থার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে টাকা তোলার অভিযোগও ছিল দুই ডিরেক্টরর বিরুদ্ধে। জানা যায়, ফরেক্স ট্রেডিং (Forex Trading)-এর নামে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বাজার থেকে টাকা তোলা হয়েছিল।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in