NPA: সুপ্রিম কোর্টে এনপিএ মোকাবিলায় বিধিনির্দেশ চেয়ে সুব্রহ্মনিয়াম স্বামীর করা আবেদন খারিজ

বৃহস্পতিবার আদালত বলেছে 'এটি সাংসদদের কর্তব্য ' এবং নীতিগত বিষয় যা স্থির করা উচিত সরকার এবং আর বি আইয়ের। তবে সর্বোচ্চ ন্যায়ালয় স্বামীকে আর বিআইকে জানানোর অনুমতি দিয়েছেন। স্বামী নিজেই এদিন সওয়াল করেন।
NPA: সুপ্রিম কোর্টে এনপিএ মোকাবিলায় বিধিনির্দেশ চেয়ে সুব্রহ্মনিয়াম স্বামীর করা আবেদন খারিজ
ফাইল ছবি সংগৃহীত

ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্রে এনপিএর মোকাবিলায় বিধিনির্দেশ চেয়ে করা সাংসদ সুব্রহ্মনিয়াম স্বামীর আবেদন গ্রহণ করতে রাজি হয়নি সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার আদালত বলেছে 'এটি সাংসদদের কর্তব্য ' এবং নীতিগত বিষয় যা স্থির করা উচিত সরকার এবং আর বি আইয়ের। তবে সর্বোচ্চ ন্যায়ালয় স্বামীকে আর বিআইকে জানানোর অনুমতি দিয়েছেন। স্বামী নিজেই এদিন সওয়াল করেন।

বিচারপতি চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি বিক্রম নাথ ও বিচারপতি বি ভি নাগারত্ন এদিন স্বামীকে বলেন, ' কীভাবে আমরা বিধিনির্দেশ তৈরি করব, যাতে অনুৎপাদক সম্পদ তৈরি হবে না? এটা সাংসদদের বিষয়।'

স্বামী বলেন তাঁর আবেদন মূলত পদ্ধতিগত এবং ঋণের প্রস্তাবব নিয়ে যাতে এনপিএ কখনও না হয় এবং এটা সকলের পক্ষেই ভাল। তিনি আরও বলেন, আদালত এই বিষয়ে একটি কমিটি গড়ে দিতে পারে। সবাই মিলে পথ বের করার ওপর জোর দেন তিনি।

বিচারপতি নাথ বলেন, 'আরবিআই এবং অর্থমন্ত্রক বিধিনির্দেশ জারি করেছে এবং নীতিও তৈরি হয়েছে যাতে এনপিএ না ঘটে। আমাদের এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার প্রয়োজন নেই।'

স্বামী বলেন,আরবিআই এনপিএ নিয়ে অতিরিক্ত গোপনীয়তা রক্ষা করছে। যখন ব্যাঙ্ক উঠে যায়, তখন মানুষকে টাকার জন্যে এখানে ওখানে ছুটতে হয়। তিনি আরও বলেন এই আবেদনে যে রায়ের উল্লেখ করা হয়েছে অন্যদের সঙ্গে, সেখানে বলা আছে আদালত এই বিষয়ে ঢুকতে পারবে না, এমন কঠিন অবস্থান নেয়নি।

বিচারপতি চন্দ্রচূড় বলেন,' আমরা শেষ পর্যন্ত বলতে পারি আরবিআই আপনার আবেদন খতিয়ে দেখে নীতিস্তরে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। কিন্তু কমিটি গঠন ইত্যাদি করা যাবে না।'

স্বামী তাঁর আবেদনে বলেছেন প্রয়োজনীয় বিধিনির্দেশের জন্য একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করলে তা আদালতের পক্ষে যথাযথ হবে। বেঞ্চ বলে' এই ধরনের বিষয়ে যে সুবিধা চাওয়া হয়েছে তা নীতির মূল বিষয়। যা একমাত্র আরবিআইয়ের মতো বিশেষজ্ঞদের আওতায় পড়ে।' বেঞ্চ আরও বলে আদালতের পক্ষে নীতিগত বিষয়ে ঢোকা সম্ভব নয়।

বেঞ্চ তার আদেশে বলে, তারা বিষয়টি আবেদনকারীর ওপরেই ছেড়ে দিচ্ছেন। এই আবেদনটি অথবা অন্য একটি আবেদন আরবিআইয়ের কাছে পেশ করলে তারা ক্ষোভের সমাধানে এমন কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারে যাতে বিধিনির্দেশ পরিবর্তন করা যায়।

- with Agency Input

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in