National Monetisation Pipeline: প্রধানমন্ত্রী মোদী ভারতের অমূল্য সম্পদ বিক্রি করছেন - রাহুল গান্ধী

রাহুল গান্ধীর অভিযোগ, কেন্দ্রের এই মনিটাইজেশন পরিকল্পনার ফলে কেবলমাত্র ২-৩টি বেসরকারি সংস্থার লাভ হবে। হাতেগোনা কয়েকটি মাত্র ব‍্যবসা পড়ে থাকবে। কর্মসংস্থানের সুযোগ ব‍্যাপক কমবে।
National Monetisation Pipeline: প্রধানমন্ত্রী মোদী ভারতের অমূল্য সম্পদ বিক্রি করছেন - রাহুল গান্ধী
রাহুল গান্ধী এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীফইল ছবি সংগৃহীত

গত ৭৫ বছরে ভারত যা তৈরি করেছে, প্রধানমন্ত্রী সব বিক্রি করে দিচ্ছেন। ন‍্যাশনাল মনিটাইজেশন পাইপলাইনের তীব্র বিরোধিতা করে একথা বললেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। কেন্দ্রকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, কংগ্রেসের কয়েক দশকের শাসনে কিছুই হয়নি ‌বলে বিজেপি প্রায়শই যে দাবি করে, এই তালিকা বিজেপির সেই দাবিকে মিথ‍্যা প্রমাণ করে।

রাহুল গান্ধীর অভিযোগ, কেন্দ্রের এই মনিটাইজেশন পরিকল্পনার ফলে কেবলমাত্র ২-৩টি বেসরকারি সংস্থার লাভ হবে। হাতেগোনা কয়েকটি মাত্র ব‍্যবসা পড়ে থাকবে। কর্মসংস্থানের সুযোগ ব‍্যাপক কমবে।

কেন্দ্র সরকার কোন কোন সরকারি পরিকাঠামো বিক্রি করতে চলেছে তার একটি তালিকা উল্লেখ করে সাংবাদিক সম্মেলনে রাহুল গান্ধী বলেন, "আমি যুবদের বলতে চাই কী কী বিক্রি করা হচ্ছে এবং কাকে কাকে বিক্রি করা হচ্ছে। ২ থেকে ৩টি বেসরকারি সংস্থাকে এগুলো বিক্রি করা হবে। আমি করোনার বিষয়ে যখন বলেছিলাম তখন আপনারা সবাই হেসেছিলেন। তারপর আপনারা দেখলেন কী হলো। এখন আমি আবার বলছি দেশের ভবিষ্যতের ওপর মনিটাইজেশনের এই সিদ্ধান্ত ব‍্যাপক প্রভাব ফেলবে।"

কেন্দ্র সরকারকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, "বিজেপির স্লোগান ছিল ৭০ বছরে দেশে কোনো উন্নয়ন হয়নি। গতকাল অর্থমন্ত্রী এই ৭০ বছরে নির্মিত সমস্ত সম্পদ মনিটাইজেশনের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন।"

সোমবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ৬ লক্ষ কোটি টাকার ন‍্যাশনাল মনিটাইজেশন প্ল‍্যান প্রকাশ করেছেন, যার মূল উদ্দেশ্য বিভিন্ন সরকারি অবকাঠামোগুলি বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া। এই তালিকায় ২৫টি বিমানবন্দর, ৪০টি রেল স্টেশন, ১৫টি রেলওয়ে স্টেডিয়াম, একাধিক বন্দর, সড়ক ইত‍্যাদি রয়েছে।

রোড বেসরকারিকরণের মাধ্যমে ১.৬০ কোটি টাকা তোলার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে সরকার। রেল থেকে ১.৫২ কোটি টাকা এবং পাওয়ার ট্রান্সমিশন থেকে ৪৫ হাজার কোটি টাকা তুলতে চেয়েছে সরকার। এগুলোর উল্লেখ করে রাহুল গান্ধী বলেন, "আপনারা সকলেই জানেন কার কাছে বন্দর এবং বিমানবন্দর বিক্রি করা হবে। একটি কোম্পানির কাছেই এগুলো বিক্রি করা হবে।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in