Nagaland: অবশেষে চাপে পড়ে AFSPA প্রত্যাহার বিবেচনা করতে 'বিশেষ কমিটি' গঠন করল কেন্দ্র

১৯৫৮ সালের আফস্পা আইন উত্তর পূর্বের রাজ্যের বাসিন্দাদের কাছে কার্যত আতঙ্কের ইস্যু হয়ে উঠেছে। এই আইন তুলে নেওয়ার দাবিতে বহুদিন ধরে উত্তরপূর্বের একাধিক রাজ্য সরব হয়েছে।
Nagaland: অবশেষে চাপে পড়ে AFSPA প্রত্যাহার বিবেচনা করতে 'বিশেষ কমিটি' গঠন করল কেন্দ্র
ফাইল চিত্র

নাগাল্যান্ড থেকে সেনাবাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা আইন বা আফস্পা প্রত্যাহার করা হবে কিনা, সেব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে বিশেষ কমিটি গড়ছে কেন্দ্র। রবিবার নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেফিউ রিও এমনটাই জানালেন। ১৯৫৮ সালের আফস্পা আইন উত্তর পূর্বের রাজ্যের বাসিন্দাদের কাছে কার্যত আতঙ্কের ইস্যু হয়ে উঠেছে। এই আইন তুলে নেওয়ার দাবিতে বহুদিন ধরে উত্তরপূর্বের একাধিক রাজ্য সরব হয়েছে। মুখ খুলেছে বিরোধী রাজনৈতিক শিবিরও। অনেক আন্দোলন মিছিলও হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের গোড়ার দিকে জঙ্গী সন্দেহে নিরীহ গ্রামবাসীদের উপর গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে। ঘটনার জেরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর-পূর্বাঞ্চল-সহ গোটা দেশ। প্রতিবাদে সরব হয় অনেক সংগঠন, গোষ্ঠীও। নাগাল্যান্ডে সেনাবাহিনীর কোনও পদক্ষেপ বরদাস্ত করা হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়। পাশাপাশি এই আইন প্রত্যাহারের দাবি জানায় একাধিক স্থানীয় রাজনৈতিক শিবিরও। এই দাবিতে সরব হয়ে পথে নামেন বহু সাধারণ মানুষ।

গত ২০ ডিসেম্বর নাগাল্যান্ডের বিধানসভা হত্যা ও আফস্পা প্রত্যাহারের দাবিতে পাঁচ দফা প্রস্তাবে সায় দেয়। নাগাল্যান্ড-সহ উত্তর পূর্ব থেকে আফস্পা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। গত ২৩ ডিসেম্বর এই ইস্যুতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে বসেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা, নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেফিউ রিও, নাগা পিপলস পার্টির টি আর জেলিয়াং, নাগাল্যান্ডের উপ মুখ্যমন্ত্রী ওয়াই প্যাটন।

গত ২৩ ডিসেম্বরের সেই বৈঠকের পর এদিন নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেফিউ রিও টুইট করে বিষয়টি নিয়ে গুরুত্ব সহকারে আলোচনা করার জন্য ধন্যবাদ জানান। পাশাপাশি তিনি 'সব পক্ষকে শান্তি বজায় রাখা'র আবেদন করেন। তিনি জানিয়েছেন, নাগাল্যান্ড থেকে আফস্পা প্রত্যাহার হবে কি না, তা খতিয়ে দেখতে কেন্দ্র একটি কমিটি গড়ছে।

সূত্রের খবর, কমিটিতে থাকবেন কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের প্রতিনিধিরা। নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী রিওর তরফে রবিবার জানানো হয়, কমিটিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সচিব থাকার পাশাপাশি নাগাল্যান্ড পুলিশের প্রতিনিধিরাও থাকতে পারেন।

এদিকে, গ্রামবাসীদের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন নেফিউ। ওই ঘটনার পর একাধিক ঘটনায় ৩৫ জন আহত হন। গোটা ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছে একাধিক সংগঠন।

Nagaland: অবশেষে চাপে পড়ে AFSPA প্রত্যাহার বিবেচনা করতে 'বিশেষ কমিটি' গঠন করল কেন্দ্র
Nagaland: নাগাল্যান্ড বিধানসভায় AFSPA আইন প্রত্যাহারের দাবিতে প্রস্তাব পাশ, অস্বস্তিতে কেন্দ্র

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in