স্বাস্থ্য খাতে ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে GDP-র তুলনায় অর্থ বরাদ্দ কমিয়েছে কেন্দ্র!

সরকারীভাবে স্বাস্থ্য খাতে ব্যক্তি পিছু খরচের ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গের তুলনায় বেশি খরচ করেছে কেরালা সরকার।
ছবি প্রতীকী
ছবি প্রতীকীফাইল ছবি, দ্য ওয়ারের সৌজন্যে

স্বাস্থ্য খাতে জিডিপি (GDP)-র ৪ শতাংশ খরচ করার জন্য সরকারের কাছে দীর্ঘদিন দাবি জানিয়ে আসছেন বিশেষজ্ঞরা। দেশের মানুষের জন্য বিশেষজ্ঞদের সেই পরামর্শ মানা তো দূর অস্ত, বরং উল্টো পথে হাঁটছে মোদী সরকার। ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে স্বাস্থ্যখাতে জিডিপি-র ১.৩৫ শতাংশ ব্যয় করেছিল কেন্দ্রে। কিন্তু, ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে তা কমে দাঁড়িয়েছে জিডিপি-র ১.২৮ শতাংশ। সোমবার কেন্দ্রীয় সরকারের যে জাতীয় খরচ সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছে তাতেই উঠে এসেছে এই চিত্র

রিপোর্টে বলা হয়েছে ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য খাতে মোট ব্যয় হয়েছে ৫,৯৬,৪৪০ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকার খরচ করেছে ২,৪২,২১৯ কোটি টাকা। যা জিডিপির মাত্র ১.২৮ শতাংশ। এই আর্থিক বছরে কেন্দ্রের মোট জিডিপি (GDP)-র পরিমাণ ছিল ১,৮৮,৯৯,৬৬৮ কোটি টাকা।

অন্যদিকে, ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য খাতে মোট ব্যয় হয়েছে ৫,৬৬,৬৪৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকার খরচ করেছে ২,৩১,১০৪ কোটি টাকা। যা জিডিপির মাত্র ১.৩৫ শতাংশ। এই আর্থিক বছরে কেন্দ্রের মোট জিডিপি-র পরিমাণ ছিল ১,৭০,৯০,০৪২ কোটি টাকা।

তুলনামূলক ভাবে দেখা যাচ্ছে- ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে কেন্দ্র সরকার স্বাস্থ্য খাতে অতিরিক্ত ১১,১১৫ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ করলেও, জিডিপি বৃদ্ধির সঙ্গে তা সমানুপাতিক নয়। সহজভাবে বলতে গেলে - জিডিপি বৃদ্ধির সঙ্গে তাল মিলিয়ে সঠিক পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করেনি মোদী সরকার।

রাজ্য ভিত্তিক হিসাব:

স্বাস্থ্যখাতে সরকারি অর্থ বরাদ্দের ক্ষেত্রে সবথেকে খারাপ অবস্থা - মহারাষ্ট্র, হরিয়ানা, কর্ণাটক ও তেলেঙ্গানায়। সবকটি রাজ্যে মোট জিডিপির ০.৭ শতাশ ব্যয় করেছে স্বাস্থ্যখাতে।

আবার, অন্যদিকে সরকারিভাবে ব্যক্তি পিছু চিকিৎসা খাতে খরচের ক্ষেত্রে সকল রাজ্যের শীর্ষে হিমাচল প্রদেশ। ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে প্রতি ব্যক্তির চিকিৎসা খাতে ৩,৬০৪ টাকা খরচ করেছে রাজ্য সরকার।

এই ক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বাম শাসিত কেরালা। ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে প্রতি ব্যক্তির চিকিৎসা খাতে ২,৪৭৯ টাকা খরচ করেছে কেরলা সরকার। পশ্চিমবঙ্গ সরকার ব্যক্তিপিছু খরচ করেছে ১,২০৯ টাকা। অর্থাৎ, সরকারীভাবে স্বাস্থ্য খাতে ব্যক্তি পিছু খরচের ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গের তুলনায় অনেক বেশি খরচ করেছে কেরালা সরকার।

ছবি প্রতীকী
২০২২ অর্থবর্ষের শেষে দেশের ঋণ GDP-র ৬২ শতাংশে পৌঁছাবে বলে অনুমান অর্থ মন্ত্রকের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in