Md Zubair Bail: আপত্তিকর ট্যুইট মামলায় দিল্লি আদালতে জামিন পেলেন মহম্মদ জুবেইর

পাটিয়ালা হাউস কোর্টের অতিরিক্ত দায়রা জজ দেবেন্দর কুমার জাঙ্গালা শুক্রবার জুবেইরকে ৫০ হাজার টাকার বন্ডে জামিন দিয়েছেন। জামিনের শর্ত হিসেবে জানানো হয়েছে তিনি অনুমতি ছাড়া দেশ ত্যাগ করতে পারবেন না।
মহম্মদ জুবেইর
মহম্মদ জুবেইরগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

আপত্তিকর ট্যুইট মামলায় জামিন পেলেন অল্ট নিউজের সহপ্রতিষ্ঠাতা মহম্মদ জুবেইর। শুক্রবার "আপত্তিকর ট্যুইট" সম্পর্কিত মামলায় দিল্লির একটি আদালত Alt নিউজের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মহম্মদ জুবেইরকে জামিন দিয়েছে। মহম্মদ জুবেইরের ট্যুইট ধর্মীয় গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা প্রচার করেছে বলে অভিযোগ উঠেছিল৷

পাটিয়ালা হাউস কোর্টের অতিরিক্ত দায়রা জজ দেবেন্দর কুমার জাঙ্গালা শুক্রবার জুবেইরকে ৫০ হাজার টাকার বন্ডে জামিন দিয়েছেন। এছাড়াও জামিনের শর্ত হিসেবে জানানো হয়েছে তিনি অনুমতি ছাড়া দেশ ত্যাগ করতে পারবেন না এবং তাঁর একজন জামিনদার থাকতে হবে। তবে এদিন জামিন পেলেও আরও দুটি মামলার কারণে তাঁকে আপাতত জেলেই থাকতে হবে।

এই বিষয়ে একটি বিস্তারিত আদেশ আজই পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার একই বেঞ্চ রায় ঘোষণার বিষয়ে জানিয়েছিল। আদালত আগে উল্লেখ করেছে যে, সুপ্রিম কোর্ট এই বিষয়ে একটি পৃথক মামলার শুনানি করছে এবং সেই অনুযায়ী, বিষয়টি আগে স্থগিত করা হয়েছিল।

শুনানির সময়, জুবেইরের কৌঁসুলি বৃন্দা গ্রোভার তাঁর যুক্তিতে বলেন, "চার বছর পরেও ২০১৮ এর ট্যুইটে সম্পর্কে এত উত্তেজক কী থাকতে পারে? তিনি আরও বলেন, পুলিশ ক্রমাগত এই মামলায় বিভিন্ন বিষয় যোগ করছে।"

জুবেইরের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির (আইপিসি) ধারা ১২০ বি (অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র) এবং ২০১ (প্রমাণ হারিয়ে যাওয়া) এবং বিদেশী অনুদান (নিয়ন্ত্রণ) আইনের ৩৫ ধারার অধীনে নতুন অভিযোগ আনা হয়েছে।

২ জুলাই, পাতিয়ালা হাউস কোর্টে চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট স্নিগ্ধা সারওয়ারিয়া জুবেইরের জামিনের আবেদন প্রত্যাখ্যান করেন এবং দিল্লি পুলিশের আবেদন অনুযায়ী তার ১৪ দিনের হেফাজত মঞ্জুর করেন।

জুবেইরের জামিনের আবেদন খারিজ করে সারওয়ারিয়া জানান, "যেহেতু বিষয়টি তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে এবং মামলার সামগ্রিক তথ্য ও পরিস্থিতি এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অভিযুক্ত অপরাধের প্রকৃতি এখনও সম্পূর্ণ বিচার করা হয়নি, তাই জামিন মঞ্জুর করার জন্য কোন ভিত্তি তৈরি হয়নি।"

এফআইআর অনুসারে, অভিযুক্ত জুবেইর একটি পুরানো হিন্দি সিনেমার স্ক্রিনশট ব্যবহার করেছিলেন যাতে একটি হোটেলের ছবি দেখানো হয়েছিল এবং এর বোর্ডে 'হানিমুন হোটেল' এর পরিবর্তে 'হনুমান হোটেল' লেখা ছিল।

তার ট্যুইটে জুবেইর লিখেছিলেন, "২০১৪ সালের আগে: হানিমুন হোটেল। ২০১৪ সালের পরে: হনুমান হোটেল।”

মহম্মদ জুবেইরের আবেদনের ভিত্তিতে দিল্লি হাইকোর্ট এর আগে দিল্লি পুলিশকে একটি নোটিশ জারি করে। যেখানে পাটিয়ালা হাউস কোর্টের আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে জুবেইরের পুলিশ হেফাজত এবং কথিত আপত্তিকর ট্যুইটের সাথে তার ল্যাপটপ বাজেয়াপ্ত করার অনুমতি দেয়।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in