বেজে গিয়েছে বিধানসভা নির্বাচনের দামামা, লিটমাস টেস্টের জন্য তৈরি সব পক্ষই
ছবি- প্রতীকীসংগৃহীত

বেজে গিয়েছে বিধানসভা নির্বাচনের দামামা, লিটমাস টেস্টের জন্য তৈরি সব পক্ষই

পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায়, অসমে তিন দফায়, কেরল, তামিলনাড়ু ও পুদুচেরিতে এক দফা করে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। ভোট গণনা ২ মে।

নয়াদিল্লি, ২৭ ফেব্রুয়ারি: শুক্রবারই ৫ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। জাতীয় পর্যায়ে নির্বাচনী যুদ্ধের দামামা বেজে গিয়েছে বলাই যায়। পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায়, অসমে তিন দফায়, কেরল, তামিলনাড়ু ও পুদুচেরিতে এক দফা করে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। ভোট গণনা ২ মে।

এই বিধানসভা নির্বাচনের মধ্যে দিয়েই এবার পাঁচ রাজ্যেই কংগ্রেস ও বিজেপির লিটমাস টেস্ট হতে চলেছে। মোট ৮২৪ টি বিধানসভা আসনে ভোট হতে চলেছে, যেখানে ভোটদাতা রয়েছে ১৮. ৬৮ কোটি মানুষ। মোট ২.৭ লাখ বুথে হবে ভোটগ্রহণ। পুরো নির্বাচনই কোভিড-বিধি মেনে সম্পন্ন করতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

প্রসঙ্গত, বিহার বিধানসভা নির্বাচনের সময়ই প্রথম কোভিড বিধি মেনে দেশে ভোটগ্রহণ হয়। প্রত্যেকটি বুথে ১৫০০ জনের পরিবর্তে ১০০০ জন করে ভোটদাতা এসেছিলেন। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে দেশের চোখ পশ্চিমবঙ্গের দিকেই রয়েছে। তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে ভোট আবহেই আক্রমণ ও প্রতি আক্রমণের পালা শুরু হয়ে গিয়েছে বহু আগেই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে জোরদার প্রচার শুরু করে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। একচাল জমি ছাড়তেও রাজি নয় কোনও পক্ষই। মূলত কেন্দ্রীয় প্রকল্প নিয়ে রাজ্য সরকারের অনিহা, ক্ষমতা ধরে রাখতে হিংসার আবহ তৈরি করে রাখাকে সামনে রেখেই একের পর এক আক্রমণ চলছে রাজ্যের শাসক শিবিরের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে, 'বহিরাগত' ইস্যুকে সামনে রেখে প্রতি আক্রমণ চালাচ্ছে শাসক শিবিরও।

এর মধ্যে কংগ্রেস ও বাম দলগুলোও নিজেদের মতো করে নিজেদের জায়গা তৈরি করতে উঠেপড়ে লেগেছে। বিরোধী জোট ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট এনে আব্বাস সিদ্দিকী নিজের মতো করে সংখ্যালঘু ভোটকে নিজের দিকে টানতে নির্বাচনী ঘুটি সাজাতে শুরু করে দিয়েছেন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in