কেরালায় পিনারাই বিজয়নের নেতৃত্বে বাম ঝড়, রাজ্যের একমাত্র কেন্দ্রও হাতছাড়া বিজেপির

গত ৪০ বছরে এই প্রথম পরপর দু'বার রাজ‍্যে নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখলো কোনো জোট সরকার। দ্বিতীয়, ভারতের মধ্যে অন্ধ্রপ্রদেশের পরে কেরলই একমাত্র বিধানসভা, যেখানে বিজেপির কোনো প্রতিনিধি নেই।‌
কেরালায় পিনারাই বিজয়নের নেতৃত্বে বাম ঝড়, রাজ্যের একমাত্র কেন্দ্রও হাতছাড়া বিজেপির
পিনারাই বিজয়নছবি দেশাভিমানীর সৌজন্যে

একসাথে দুটো ইতিহাস তৈরী হলো কেরলে। এক, গত ৪০ বছরে এই প্রথম পরপর দু'বার রাজ‍্যে নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখলো কোনো জোট সরকার। দ্বিতীয়, ভারতের মধ্যে অন্ধ্রপ্রদেশের পরে কেরলই একমাত্র বিধানসভা, যেখানে বিজেপির কোনো প্রতিনিধি নেই।‌

১৪০ আসন বিশিষ্ট বিধানসভায় ৯৯টি আসনে জিতে দ্বিতীয়বারের জন্য সরকার গড়তে চলেছে সিপিআইএম নেতৃত্বাধীন এলডিএফ জোট। বিজেপির দখলে থাকা একমাত্র কেন্দ্র নেমোমে বিজেপি প্রার্থী কুম্মানাম রাজশেখরনকে ৫,৭৫০ ভোটে পরাজিত করেছেন সিপিআইএমের বর্ষীয়ান নেতা ভি শিভানকুট্টি।

নিজের ট‍্যুইটারে সিপিআইএম নেতা তথা রাজ‍্যের অর্থমন্ত্রী থমাস আইজ‍্যাক এই প্রসঙ্গে লেখেন, "২০১৬ সালে কেরল বিধানসভা নির্বাচনে যে কেন্দ্রে জয়ী হয়েছিল বিজেপি এবারে সেখানে বিজেপিকে পরাজিত করেছি আমরা। কেরালা ভারতের একমাত্র বিধানসভা যেখানে বিজেপির কোনো প্রতিনিধি নেই। কেরলে ধর্মনিরপেক্ষতার দূর্গ অক্ষত থাকবে।"

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ৯১টি আসনে জিতে সরকার গড়েছিল লেফট ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট। এই বিধানসভা নির্বাচনে তারা ৯৯টি আসনে জয়ী হয়েছে। অপরদিকে কংগ্রেসের ইউডিএফ জোট শরিক এবারে ৪৭টি আসনে জয়ী হয়েছে, ‌যা গতবারের তুলনায় ৬টি কম।

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন ধর্মাদাম কেন্দ্র থেকে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের সি রঘুনাথনকে ৫০,১২৩ ভোটে পরাজিত করেছেন।

মট্টান্নুর কেন্দ্র থেকে রেকর্ড ব‍্যবধানে জয়ী হয়েছেন কেরলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা। তিনি তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীকে ৬০,৯৬৩টি ভোটে পরাজিত করেছেন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in