Lakhimpur Kheri: FIR-এ কাদের নাম? ক'জন গ্রেপ্তার হয়েছে? UP সরকারকে শুক্রবার জানাতে হবে শীর্ষ আদালতে
সুপ্রিম কোর্টফাইল ছবি সংগৃহীত

Lakhimpur Kheri: FIR-এ কাদের নাম? ক'জন গ্রেপ্তার হয়েছে? UP সরকারকে শুক্রবার জানাতে হবে শীর্ষ আদালতে

এদিন প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ উত্তরপ্রদেশের অ্যাডিশনাল অ্যাডভোকেট জেনারেল গরিমা প্রসাদকে বলেন, আমরা জানতে চাই কারা অভিযুক্ত এবং তাঁরা এখনও গ্রেপ্তার হয়েছেন অথবা হননি?

লখিমপুর খেরির ঘটনায় কড়া অবস্থান নিলো সুপ্রিম কোর্ট। বৃহস্পতিবার শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে এই ঘটনায় উত্তরপ্রদেশ সরকারকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। যে নোটিশ অনুসারে লখিমপুর খেরির ঘটনায় এফআইআর-এ কাদের নাম আছে এবং তাঁদের এখনও গ্রেপ্তার করা হয়েছে অথবা হয়নি তা শুক্রবারের মধ্যে জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিন প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ উত্তরপ্রদেশের অ্যাডিশনাল অ্যাডভোকেট জেনারেল গরিমা প্রসাদকে বলেন, “আমরা জানতে চাই কারা অভিযুক্ত এবং তাঁরা এখনও গ্রেপ্তার হয়েছেন অথবা হননি?” প্রধান বিচারপতি ছাড়াও এই বেঞ্চে আছেন বিচারপতি সূর্য কান্ত এবং বিচারপতি হিমা কোহলী। তাঁরা উত্তরপ্রদেশ সরকারের কৌসুলীকে আরও বলেন যে “আপনারা সঠিকভাবে এই ঘটনার তদন্ত করছেন না”।

এদিন শীর্ষ আদালতের বেঞ্চের কাছে উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষে গরিমা প্রসাদ জানান, লখিমপুর খেরির ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। যার উত্তরে প্রধান বিচারপতি বলেন, আমরাও সেরকমই মনে করি।

এদিন শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে গরিমা প্রসাদকে বলা হয়, ঘটনায় নিহত এক ব্যক্তির মায়ের অবিলম্বে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে। এদিন এক আইনজীবী বিচারপতিদের জানান নিহত ব্যক্তির মা সন্তানের মৃত্যুর পর থেকেই গুরুতর অসুস্থ এবং খুবই খারাপ অবস্থায় আছেন। আদালত জানিয়েছে, ‘তাঁকে অবিলম্বে নিকটবর্তী সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে।

উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে গরিমা প্রসাদ বেঞ্চকে জানান, ঘটনার তদন্তের জন্য সিট গঠন করা হয়েছে। এছাড়াও বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর উত্তরে বেঞ্চ জানতে চায়, কাকে এই কমিশনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে? এবং এই ঘটনার পর এলাহাবাদ হাইকোর্টে যে যে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে তার বর্তমান অবস্থাই বা কী?

এদিন বেঞ্চের কাছে সুপ্রিম কোর্টের দুই আইনজীবী ঘটনার শীর্ষ আদালতের তত্বাবধানে সিবিআই তদন্তের দাবি জানান। আইনজীবী শিব কুমার ত্রিপাঠী এবং আইনজীবী সি এস পান্ডা এক লিখিত চিঠিতে জানিয়েছেন, উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে কৃষকদের হত্যার ঘটনার গুরুত্ব বিচার করে মহামান্য আদালতের বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করা উচিত।

তাঁরা আরও জানিয়েছেন, হিংসা এখন আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতির অঙ্গ হয়ে গেছে এবং উত্তরপ্রদেশকে এই হিংসা বিধ্বস্ত অবস্থা থেকে রক্ষা করার জন্য পর্যবেক্ষণ দরকার।

- with Agency Inputs

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.