কুম্ভ মেলা: শেষ শাহী স্নানের পরে হরিদ্বারে জারি হল কোভিড কার্ফু

কুম্ভমেলার শেষ শাহী স্নানের পরেই হরিদ্বারে জারি হল কোভিড কার্ফু। হরিদ্বার এবং সংলগ্ন রুরকি, লস্কর, ভগবানপুর প্রভৃতি অঞ্চলে এই কার্ফু জারি হয়েছে। আগামী ৩ মে পর্যন্ত এই কার্ফু চলবে বলে জানা গেছে।
কুম্ভ মেলা: শেষ শাহী স্নানের পরে হরিদ্বারে জারি হল কোভিড কার্ফু
ছবি দ্য কুইন্টের সৌজন্যে

কুম্ভমেলার শেষ শাহী স্নানের পরেই হরিদ্বারে জারি হল কোভিড কার্ফু। হরিদ্বার এবং সংলগ্ন রুরকি, লস্কর, ভগবানপুর প্রভৃতি অঞ্চলে এই কার্ফু জারি হয়েছে। আগামী ৩ মে পর্যন্ত এই কার্ফু চলবে বলে প্রশাসনিক সূত্রে জানা গেছে। গতকালই শেষ হয়েছে কুম্ভের শেষ শাহী স্নান। এর আগে দুই শাহী স্নান হয় ১২ এবং ১৪ এপ্রিল।

গত ৩১ মার্চ কুম্ভমেলা শুরুর আগে উত্তরাখণ্ডের দৈনিক করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ছিলো ১,৮৬৩। বুধবার সকালে কেন্দ্রীয় সরকারের স্বাস্থ্য দপ্তর প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুসারে উত্তরাখণ্ডে শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৫,৭০৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৯৬ জনের। এবারের কুম্ভ মেলায় প্রায় ৩০ লক্ষ মানুষ অংশ নিয়েছেন বলে দাবি করেছে কোনো কোনো সংবাদমাধ্যম। দেশের কোভিড পরিস্থিতিতে এই ধরণের মেলার আয়োজন নিয়ে প্রশ্নও উঠেছে বিভিন্ন মহলে।

প্রতি ১২ বছর অন্তর হওয়া কুম্ভ মেলা এই বছর এমন এক অসাধারণ পরিস্থিতির মধ্যে হয়েছে, যখন গোটা বিশ্বের মধ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যার বিচারে ভারত দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় হরিদ্বারের সমস্ত ঘাটে কঠোরভাবে কোভিড বিধি পালনের জন্য নির্দেশিকা জারি করা হলেও বারবার অভিযোগ ওঠে যে সেই বিধি মানা হয়নি। বিশেষজ্ঞদের তরফ থেকেও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য বারবার আবেদন জানানো হয়। কিন্তু এই নির্দেশিকা-অনুরোধকে ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছেন ভক্তরা। তাঁদের দাবি, তীর্থযাত্রা নিয়ে এই নির্দেশিকা জারি ঠিক হয়নি। তীর্থযাত্রার সময় নির্দেশিকা মানা কার্যত অসম্ভব।

এর আগে নিরঞ্জনি আখড়া, জুনা আখড়া দ্বিতীয় শাহী স্নানের পরেই কোভিড সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় কুম্ভ মেলায় তাঁদের অংশগ্রহণ এবারের মত শেষ বলে ঘোষণা করে। জুনা আখড়ার প্রধান স্বামী অবধেশানন্দ এক ট্যুইট বার্তায় জানান – দেশের মানুষের স্বাস্থ্য এবং তাঁদের জীবন রক্ষা আমাদের কাছে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। করোনা মহামারীর প্রকোপ বেড়ে চলায় আমরা বিধি মেনে কুম্ভের সমস্ত দেবতা বিসর্জন করে দিয়েছি। জুনা আখড়ার পক্ষ থেকে আমরা এই কুম্ভ মেলার বিধিমত বিসর্জন সমাপ্তি ঘোষণা করলাম।

যদিও মূল ১৩ আখড়ার দুই আখড়া সরে গেলেও বাকি ১১ আখড়া কুম্ভ মেলার শেষ শাহী স্নান পর্যন্ত থাকার পক্ষে ছিলেন। এই নিয়ে বিতর্ক গড়ায় আখড়া পরিষদ পর্যন্ত।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in