কেরালায় শিক্ষিতের হার ৯০%, তাই পদ্ম ফুটছে না সেখানে - স্বীকারোক্তি রাজ্যের একমাত্র বিজেপি বিধায়কের

তিনি বলেন, যে কোনো জিনিস পরিচালনা করার অসাধারণ দক্ষতা রয়েছে বিজয়নের। তিনি দক্ষ, বুদ্ধিমান, কম কথা বলেন কিন্তু নিজের লক্ষ্য পূরণ করেন। খুব গরীব পরিবারের ছেলে, যেখান থেকে আজ উনি এই জায়গায় এসেছেন।
কেরালায় শিক্ষিতের হার ৯০%, তাই পদ্ম ফুটছে না সেখানে - স্বীকারোক্তি রাজ্যের একমাত্র বিজেপি বিধায়কের

কেরালায় শিক্ষিতের হার ৯০ শতাংশ বলেই সেখানে বিজেপি এখনও নিজের জায়গা তৈরি করতে পারছে না। না না, বিজেপি-বিরোধী কোনো নেতা একথা বলেননি। একথা বলেছেন সে রাজ‍্যে বিজেপির একমাত্র বিধায়ক ও রাজাগোপাল। ২০১৬ সালের নির্বাচনে নেমম কেন্দ্র থেকে এই রাজাগোপালের হাত ধরেই কেরলে খাতা খুলেছিল বিজেপি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে একটি সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় বিজেপি বিধায়ককে প্রশ্ন করা হয়েছিল, কেরালায় এখনও কেন পলিটিক্যাল স্পেস তৈরি করতে পারছে না বিজেপি, যেখানে পশ্চিমবঙ্গে মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই তারা নিজেদের মাটি যথেষ্ট শক্ত করেছে। এর উত্তরে রাজাগোপাল বলেন, "কেরালা সম্পূর্ণ আলাদা ধরনের একটা রাজ‍্য। এখানে বিজেপির জায়গা তৈরি করতে না পারার পিছনে দু-তিনটি কারণ রয়েছে। কেরলে সাক্ষরতার হার ৯০ শতাংশ। এরা নিজেদের যুক্তিবাগীশ ভাবেন। এটা শিক্ষিত মানুষদের অভ‍্যাস। এটা একটা বিষয়। দ্বিতীয় কারণটি হল এখানে ৫৫ শতাংশ হিন্দু এবং ৪৫ শতাংশ সংখ্যালঘু রয়েছে। যে কারণে কেরালাকে অন্য কোনও রাজ্যের সাথে তুলনা করা যায় না। এখানকার পরিস্থিতি আলাদা।"

এর আগে একাধিকবার বাম শাসিত কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের প্রশংসা করেছেন ও রাজাগোপাল। সাক্ষাৎকারে এই বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, "এখানে কোনো রাজনৈতিক কারণ নেই। কোনো ভালো কাজ হলে তার প্রশংসা করা উচিত। প্রতিটি মানুষের কিছু না কিছু গুণ থাকে। যে কোনো জিনিস পরিচালনা করার অসাধারণ দক্ষতা রয়েছে বিজয়নের। তিনি দক্ষ, বুদ্ধিমান, কম কথা বলেন কিন্তু নিজের লক্ষ্য পূরণ করেন। উনি খুব গরীব পরিবারের ছেলে, যেখান থেকে আজ উনি এই জায়গায় এসেছেন। ওনার নিশ্চিত কোনো গুণ রয়েছেন, যার জন্য আজ উনি এখানে পৌঁছেছেন, এই সত‍্যকে আমাদের গ্রহণ করা উচিত।"

কেরলের দীর্ঘদিনের পরম্পরা ভেঙে বামেদের দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন তিনি। তাঁর কথায়, কংগ্রেসের দিন শেষ। তাদের জাহাজ ডুবছে এবং কেউ তা পুনরুদ্ধার করতে পারবে না। বিরোধী দলগুলো জনগণের মধ্যে কোনো গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করতে পারছে না।

বয়সজনিত কারণে এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না রাজাগোপাল। তাঁর পরিবর্তে নেমম থেকে এবার প্রার্থী হচ্ছেন কুম্মানন। কেরলে বিজেপির প্রার্থী বাছাই নিয়ে কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা গিয়েছিল, তা স্বীকার করে নিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in