Kerala: স্বাস্থ্য মন্ত্রক পরিচালনায় সন্তুষ্ট নন পিনারাই বিজয়ন - পদ হারাতে পারেন বীণা জর্জ

সূত্রের মতে তিনি যেভাবে মন্ত্রক পরিচালনা করছেন তাতে সন্তুষ্ট নন CPIM নেতৃত্ব। ফেব্রুয়ারিতে CPIM রাজ্য পার্টি সম্মেলন এবং রবিবার কান্নুরে সমাপ্ত হওয়া ২৩ তম পার্টি কংগ্রেসে এটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।
Kerala: স্বাস্থ্য মন্ত্রক পরিচালনায় সন্তুষ্ট নন পিনারাই বিজয়ন - পদ হারাতে পারেন বীণা জর্জ
কেরালার স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীণা জর্জফাইল ছবি, বীণা জর্জ-এর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

অফিসে দ্বিতীয় মেয়াদের প্রথম বছর শেষ করার ঠিক আগে, মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন মন্ত্রিসভায় পরিবর্তনের বিষয়ে গুরুত্বের সাথে চিন্তা করছেন। সূত্র অনুসারে এই পরিবর্তনে পদ হারাতে পারেন প্রাক্তন সাংবাদিক এবং বর্তমান স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীণা জর্জ।

শীর্ষস্থানীয় সূত্রের মতে যেভাবে তিনি মন্ত্রক পরিচালনা করছেন তাতে সন্তুষ্ট নন সিপিআই(এম) নেতৃত্ব। গত ফেব্রুয়ারিতে সিপিআই-এম কেরালা রাজ্য সম্মেলন এবং রবিবার কান্নুরে সমাপ্ত হওয়া ২৩ তম পার্টি কংগ্রেসে এটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন সিপিআই-এম মন্ত্রীদের মধ্যে কয়েকজনের দপ্তর বদলের কথা ভাবছেন বলে জানা গেছে। সূত্র অনুসারে বীণা জর্জের বদলে স্বাস্থ্য দপ্তর যেতে পারে কে. রাধাকৃষ্ণান (এসসি/এসটি এবং দেবাসোম), ভি এন ভাসাভান (কো অপারেশান) অথবা সাজি চেরিয়ান (সংস্কৃতি, মৎস্য)-এর কাছে৷

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন মিডিয়া সমালোচক জানিয়েছেন, সবচেয়ে বড় সমস্যা বীনা জর্জকে কে কে শৈলজার স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছিল। যিনি ২০২১ সালের এপ্রিল পর্যন্ত কোভিড মহামারী পরিচালনা করার জন্য সংবাদমাধ্যম থেকে ভূয়সী প্রশংসা পেয়েছিলেন। ২০২১ নির্বাচনের পর মে মাসে শৈলজার জায়গায় বীনা দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

তিনি আরও জানিয়েছেন, "মন্ত্রীদের পারিপার্শ্বিক পরিমণ্ডল সাধারণত সংবাদমাধ্যম সূত্রেই বৃদ্ধি পায় এবং শৈলজা তাঁর উল্লেখযোগ্য কাজের জন্য সংবাদমাধ্যমের সম্পূর্ণ দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন। যদিও পিনারাই বিজয়ন তাঁর আগের মন্ত্রিসভা থেকে (২০১৬-২০২১) কোনও সদস্যকে অন্তর্ভুক্ত না করার সিদ্ধান্ত নেন এবং বিজয়নের ঘনিষ্ঠ বৃত্তে থাকা বীণা স্বাস্থ্যমন্ত্রী হবার সুযোগ পান। যদিও বেশ কিছু কারণে, বীণা জর্জ সঠিকভাবে দায়িত্ব সামলাতে ব্যর্থ হয়েছেন।" তিনি আরও বলেছেন, সবাই সবকিছুতে সফল হতে পারে না।

বর্তমানে ৪৫ বছর বয়সী বীণা অতীতে বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলের জনপ্রিয় সংবাদ উপস্থাপক ছিলেন। ২০১৬ সালে সিপিআই-এম-এর পক্ষ থেকে তাঁকে রাজনীতিতে যোগ দেবার আহ্বান জানানো হয়। ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের প্রবীণ এবং বর্তমান বিধায়ক কে. শিবাদাসন নায়ারকে পরাজিত করে তার নিজের জেলা পাঠানামথিট্টার অরণমুলা নির্বাচনী কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেন। ২০২১ সালেও তিনি একই কেন্দ্র থেকে পুনরায় জয়লাভ করেছেন।

২০ মে, ২০২১-এ কেরালায় ইতিহাস তৈরি করে পিনারাই বিজয়ন তাঁর ধারাবাহিক দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য শপথ গ্রহণ করেন। কেরালার ইতিহাসে যে কোনও সিপিআই-এম নেতৃত্বাধীন সরকারের ক্ষেত্রে প্রথমবার এই ঘটনা ঘটে। রাজনৈতিক মহলে এখন একটাই প্রশ্ন – পিনারাই বিজয়ন কী তাঁর দ্বিতীয় দফার মুখ্যমন্ত্রীত্বের প্রথম বছর পূর্ণ হবার আগেই মন্ত্রীসভায় বদল আনবেন?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.