কর্নাটকে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ, নৈতিক কারণে পদত্যাগ করলেন রমেশ জারকিহোলি

কর্নাটকে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ, নৈতিক কারণে পদত্যাগ করলেন রমেশ জারকিহোলি
কর্ণাটকের পদত্যাগী মন্ত্রী রমেশ জারকিহোলিফাইল ছবি সংগৃহীত

তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ ওঠার পর নৈতিক কারণে পদত্যাগ করলেন কর্ণাটকের বিজেপি নেতৃত্বাধীন ইয়েদুরাপ্পা মন্ত্রীসভার জলসম্পদ মন্ত্রী রমেশ জারকিহোলি। বুধবার কিছুক্ষণ আগেই তিনি তাঁর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। নিজের ইস্তফা প্রসঙ্গে তিনি জানান - আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। এই ঘটনার তদন্ত দরকার এবং আমি নিশ্চিত আমি নির্দোষ প্রমাণিত হব। কিন্তু এই মুহূর্তে নৈতিক কারণে আমি সরে দাঁড়াচ্ছি।

এর আগে কর্নাটকের জল সম্পদ মন্ত্রীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগে বিতর্ক শুরু হয়। এক সমাজকর্মীর অভিযোগ, জল সম্পদ মন্ত্রী রমেশ জারকিহোলির বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার নাম করে যৌন হেনস্থার পাশাপাশি প্রকাশ্যে এই ঘটনার কথা বললে পরিবারের ক্ষতি করে দেওয়ার হুমকিও দেওয়া হয়েছিল। এই বিষয় নিয়ে সমাজকর্মী দীনেশ কাল্লাহাল্লি বেঙ্গালুরু পুলিশ কমিশনার কমল পন্থ-এর কাছে যান। এরপর কিছু বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যম ওই চাকরিপ্রার্থীর সঙ্গে মন্ত্রীর অন্তরঙ্গ মু্হুর্তের ভিডিও ও ছবি দেখাতে শুরু করে। যদিও এই বিষয়ে মন্ত্রীর কাছ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে বৈঠকের পর কাল্লাহালি সাংবাদিকদের জানান, কাবন পার্ক পুলিশ স্টেশনে বিষয়টি নিয়ে তিনি একটি অভিযোগ এবং এফআইআর দায়ের করেছেন। সমাজকর্মীর দাবি, ওই মহিলা প্রকাশ্যে আসতে চাননি বলে তাঁর কাছে এসে আবেদন করেন অভিযোগ দায়ের করার জন্য।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, গরিব পরিবারের ওই মহিলা মন্ত্রীর কাছে একটি শর্টফিল্ম বানানোর আবেদন নিয়ে আসেন। সেই সময় কর্নাটক পাওয়ার ট্রান্সমিশন কর্পোরেশন লিমিটেড-এ চাকরি দেওয়ার নাম করে তাঁকে যৌন হেনস্থা করা হয়। এরপর মন্ত্রী যখন জানতে পারেন, ওই মহিলার কাছে ঘটনার পুরো ভিডিও রয়েছে, তখন তাঁকে এবং তাঁর পরিবারের ক্ষতি করে দেবেন বলে হুমকি দিতে থাকেন। ঘটনার সিডি নিয়ে নির্যাতিতা কাল্লাহালির কাছে আসেন। বিষয়টি যাতে গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে দেখা হয়, সেই আবেদন করে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা ও নির্যাতিতাকে পুলিশি নিরাপত্তার দাবিও করেছেন সমাজকর্মী।

কর্ণাটকের গোকক কেন্দ্রের বিধায়ক রমেশ জারকিহোলি। যিনি আগে কংগ্রেসের সঙ্গে ছিলেন এবং কর্ণাটকে কংগ্রেস-জনতা দল সরকার পতনের মূল কারিগর ছিলেন। তাঁর ভাই বালচন্দ্র জারকিহোলিও রাজ্যের বিজেপি বিধায়ক।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in