Karnataka: চিকমাগালুরে মৌলানাকে নিগ্রহ, পুলিশি তৎপরতায় তদন্ত শুরু

এক পুলিশকর্মীর হাতে এক মৌলানার হেনস্থার ঘটনায় তদন্ত শুরু করলো কর্ণাটক পুলিশ। চিকমাগালুর জেলায় গাড়ির নাম্বার প্লেট সংক্রান্ত সমস্যায় তাঁকে হেনস্থা করার অভিযোগ ওঠে।
Karnataka: চিকমাগালুরে মৌলানাকে নিগ্রহ, পুলিশি তৎপরতায় তদন্ত শুরু
ইমতিয়াজ মৌলানাছবি আজমত পাশার ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

এক পুলিশকর্মীর হাতে এক মৌলবির হেনস্থার ঘটনায় তদন্ত শুরু করলো কর্ণাটক পুলিশ। চিকমাগালুর জেলায় গাড়ির নাম্বার প্লেট সংক্রান্ত সমস্যায় তাঁকে হেনস্থা করার অভিযোগ ওঠে।

ঘটনা প্রসঙ্গে চিকমাগালুরের এসপি হাকায় অক্ষয় মাচিন্দ্রা সংবাদসংস্থা আইএএনএস-কে সোমবার জানিয়েছেন, আমরা ইতিমধ্যেই ঘটনার শিকার ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করেছি এবং নেতৃত্বও তাঁদের সঙ্গে দেখা করে ভরসা জুগিয়েছেন। এই ঘটনার যথাযথ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে তাঁদের আশ্বস্ত করা হয়েছে।

তিনি আরও জানিয়েছেন, এই ঘটনায় পুলিশ থানায় দুর্ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে এবং নির্যাতিত ব্যক্তি একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তাঁকে যখন বন্দুক দেখিয়ে ভয় দেখানো প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হয় তিনি জানিয়েছেন মৌলানার বিবৃতি অনুসারে পুলিশ থানায় এই ধরণের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

ইমতিয়াজ মৌলানা আইএএনএসকে জানিয়েছেন, যারা তাঁকে নিগ্রহ করেছে তিনি তাঁদের ক্ষমা করে দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, আমি ওই অফিসারকে ক্ষমা করে দিয়েছি যখন তিনি আমার হাত ধরেছিলেন। আমি যে পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গেছি সেরকম যেন আর কারোর সঙ্গে না হয়, তা তিনি যে ধর্মেরই হন। পুলিশ আমাকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে নিশ্চিত করেছে। যদি এটা তাঁরা লিখিতভাবে দিতেন তাহলে আরও ভালো হত। আমি এই বিষয়ে কোনো অভিযোগ দায়ের করতে চাইনা।

গাড়ির নাম্বার ত্রুটিপূর্ণ থাকার কারণে চিকমাগালুর পুলিশ ইমতিয়াজকে আটক করে। ওই সময় ইমতিয়াজ তার টু হুইলারে করে যাচ্ছিলেন। পুলিশ তাঁকে স্পট ফাইনের কথা বললে তিনি তা দিতে অস্বীকার করেন এবং জানান কোর্টে গিয়ে তিনি জরিমানা দেবেন। এর আগে ইমতিয়াজ মৌলানা এক ভিডিওতে জানিয়েছিলেন, পুলিশ অফিসার তাঁকে চড় মারেন এবং বন্দুক দেখিয়ে ভয় দেখান।

এই ঘটনার পরেই সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি অফ ইন্ডিয়া (এসডিপিআই)-এর পক্ষ থেকে কড়া প্রতিক্রিয়া জানানো হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক আফসার কোডিপেট সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার নিন্দা করেন। তিনি বলেন, এই ঘটনা একজন সাব ইন্সপেক্টরের অধীনে ঘটেছে যিনি এর আগে এক দলিতকে মূত্র পান করতে বলেছিলেন। তিনি ওই পুলিশ ইন্সপেক্টরের শাস্তির দাবি জানান।

আফসার কোডিপেট জানান, এই ঘটনায় পুলিশ অফিসারকে শাস্তি দেওয়া হবে বলে এসপি নিশ্চিত করেছেন এবং জানিয়েছেন এই ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবেনা। আমরা পুলিশের এই সহযোগিতায় খুশি। বিষয়টি এখন মিটে গেছে।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.