Karnataka: BJPতে যোগ দিতে টাকার কথা বলা হয়েছিলো - দাবি প্রাক্তন কংগ্রেস, বর্তমান BJP নেতার
কর্ণাটকের প্রাক্তন কংগ্রেস, বর্তমান বিজেপি নেতা শ্রীমন্ত পাটিলফাইল ছবি, দ্য নিউজ মিনিটের সৌজন্যে

Karnataka: BJPতে যোগ দিতে টাকার কথা বলা হয়েছিলো - দাবি প্রাক্তন কংগ্রেস, বর্তমান BJP নেতার

কর্ণাটক সংখ্যালঘু উন্নয়ন দপ্তরের প্রাক্তন মন্ত্রী শ্রীমন্ত পাটিলের চাঞ্চল্যকর দাবীতে সরগরম রাজনৈতিক মহল। সম্প্রতি রাজ্য মন্ত্রীসভা থেকে বাদ পড়ার পর শনিবার মুখ খুলেছেন এই বিজেপি নেতা।

কর্ণাটক সংখ্যালঘু উন্নয়ন দপ্তরের প্রাক্তন মন্ত্রী শ্রীমন্ত পাটিলের চাঞ্চল্যকর দাবীতে সরগরম রাজনৈতিক মহল। সম্প্রতি রাজ্য মন্ত্রীসভা থেকে বাদ পড়ার পর শনিবার মুখ খুলেছেন এই বিজেপি নেতা। কাগওয়াড়ের বিধায়ক শ্রীমন্ত পাটিল ২০১৯ সালে কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন এবং সেইসময় ১৬ বিজেপি ও জেডিএস বিধায়কের দলবদলে কর্ণাটকের জোট সরকার পড়ে যায়। এরপরেই ক্ষমতায় ফেরেন বিজেপি নেতা বি এস ইয়েদুরিয়াপ্পা।

শ্রীমন্ত পাটিল জানিয়েছেন, ২০১৯-এ দলত্যাগের সময় তাঁকে বিজেপির পক্ষ থেকে তাঁকে টাকা দেবার কথা বলা হয়েছিলো। যদিও শ্রীমন্ত পাটিলের বক্তব্য, সেই সময় তিনি বিজেপির কাছ থেকে কোনো টাকা নেননি। তার বদলে আমি সরকারে সম্মানজনক জায়গা চেয়েছিলাম।

শ্রীমন্ত পাটিলের বক্তব্য অনুসারে, সেই সময় আমাকে টাকা দেবার কথা বলা হয়েছিলো। আমি টাকার বদলে সরকারে মন্ত্রীত্ব চেয়েছিলাম। এরপরেই আমাকে মন্ত্রী করা হয়। এখন বিজেপি আমাকে নতুন মন্ত্রীসভা থেকে সরিয়ে দিয়েছে। যদিও আমি নিশ্চিত, আগামীদিনে আমি আবার মন্ত্রী হব। তিনি আরও বলেন, আমি দলের বিশিষ্ট নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছি, মারাঠা কমিউনিটির সঙ্গে কথা বলেছি। তাঁরাও আমার হয়ে কথা বলছেন। বিজেপির বিশিষ্ট নেতারা আমাকে মন্ত্রীসভায় যুক্ত করবেন বলে জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে কংগ্রেস জেডি(এস) জোট সরকারের পতনের সময় বড়ো অঙ্কের টাকার লেনদেনের অভিযোগ উঠেছিলো। রাজনৈতিক মহলের অভিযোগ ছিলো, টাকার বিনিময়ে জোট সরকারের পতন ঘটিয়েছে বিজেপি। ওইসময় যে ১৬ জন বিধায়ক সরকারের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করেছিলেন তাঁদের সকলকে মুম্বাইয়ের এক রিসরটে রাখা হয়েছিলো। যদিও সেইসময় আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ অস্বীকার করেছিলো বিজেপি। যদিও শ্রীমন্ত পাটিলের বক্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর সেই অভিযোগেই সিলমোহর পড়লো।

কংগ্রেস মুখপাত্র ব্রিজেশ কালাপ্পা এই ঘটনা প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, এর আগেই বি এস ইয়েদুরিয়াপ্পার এক অডিও টেপ ভাইরাল হয়েছিলো। যেখানে তাঁকে এক জেডিএস বিধায়কের ছেলেকে টাকা দেবার কথা বলতে শোনা যায়। যদিও সিবিআই, ইডি, আয়কর দপ্তর এই ঘটনায় কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। কারণ বিজেপি এই ঘটনা ঘটিয়েছিলো। আমরা প্রকাশ্যে এই ঘটনা স্বীকার করার জন্য শ্রীমন্ত পাটিলকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা আশা করবো সিবিআই, ইডি, আয়কর দপ্তর এবার চোখ খুলবে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in