Karnataka: বিটকয়েন কেলেঙ্কারির অভিযোগ পিএমও-তে, রাজ্য বিজেপিতে বদলের সম্ভাবনা

PMO-র এই সিদ্ধান্তে দলের কর্ণাটক নেতৃত্বের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। দলের অভ্যন্তরীণ ব্যক্তিদের অভিমত অনুসারে এর ফলে ক্ষমতাসীন দলের অভ্যন্তরে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে পারে।
Karnataka: বিটকয়েন কেলেঙ্কারির অভিযোগ পিএমও-তে, রাজ্য বিজেপিতে বদলের সম্ভাবনা
ছবি প্রতীকীফাইল ছবি সংগৃহীত

কর্ণাটকের ক্ষমতাসীন বিজেপি বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে রাজ্যের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর দফতরে পৌঁছে যাওয়ায় দলের অভ্যন্তরে টালমাটাল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সূত্র অনুসারে, অভিযোগগুলি গুরুত্ব সহকারে নেওয়া হয়েছে এবং পিএমও এই বিষয়ে আরও তদন্তের সুপারিশ করেছে।

পিএমও-র এই সিদ্ধান্তে দলের কর্ণাটক নেতৃত্বের এক অংশের মধ্যে, বিশেষ করে শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। দলের অভ্যন্তরীণ ব্যক্তিদের অভিমত অনুসারে এর ফলে ক্ষমতাসীন দলের অভ্যন্তরে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে পারে।

রাজ্যের বিরোধী দল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রাজ্য প্রধান ডি শিবকুমার জানিয়েছেন, তারা বিটকয়েন কেলেঙ্কারিতে আরটিআই-এর অধীনে একটি আবেদন দায়ের করবেন।

সূত্রের দাবি, একটি বেনামী চিঠিতে রাজ্যের শীর্ষ বিজেপি নেতাদের সম্পর্কে বিস্ফোরক বিবরণ রয়েছ। যে বিবরণ অনুসারে বিটকয়েন কেলেঙ্কারির প্রধান অভিযুক্ত শ্রীকৃষ্ণ রমেশ ওরফে শ্রীকির সাথে একাধিক শীর্ষ বিজেপি নেতৃত্ব অর্থ উপার্জনের জন্য হাত মিলিয়েছেন।

বিষয়টির গুরুত্ব বিবেচনা করে এবং আন্তর্জাতিক ব্যাংক হ্যাকিংয়ের সাথে জড়িত এই কেলেঙ্কারিতে দেশের ভাবমূর্তির মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে বলে পিএমও উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের পরামর্শ দিয়েছে।

সূত্রের অভিযোগ, অভিযুক্তরা 'জনধন প্রকল্প' হ্যাক করেছে। যে প্রকল্পে ৮০ লক্ষ অ্যাকাউন্ট রয়েছে এবং কয়েকশ কোটি টাকা জমা হয়েছে।

আরও অভিযোগ করা হয়েছে যে, প্রধান অভিযুক্ত শ্রীকি সেচ দপ্তর এবং আপার কৃষ্ণা প্রজেক্ট সহ রাজ্য সরকারের বিভিন্ন ই-টেন্ডার পোর্টালগুলি হ্যাক করছিল এবং বড় ঠিকাদাররা লাভজনক চুক্তি করতে তার সাহায্য নিয়েছিল।

ওই সূত্রই আরও জানিয়েছে, রাজ্য জুড়ে সাম্প্রতিক আইটি অভিযানে প্রাথমিক তদন্তে কয়েকশো কোটি টাকার হিসাব বহির্ভূত সম্পদ পাওয়া গেছে, যা বিটকয়েন কেলেঙ্কারির সাথে যুক্ত। তবে তদন্ত সংস্থাগুলো এখনও এই বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেনি।

সূত্রগুলি আরও অভিযোগ করেছে, রাজ্যের এক প্রভাবশালী রাজনীতিকের ছেলে মরিশাসে বিপুল পরিমাণ অর্থ স্থানান্তর করতে শ্রীকির সহায়তা নিয়েছে।

এমন জল্পনাও রয়েছে যে, দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরে রাজ্য ইউনিটে বড় রদবদলের কথা ভাবছেন এবং বলা হচ্ছে যে এই কেলেঙ্কারির অভিযোগ এবং যাবতীয় বিবরণ কর্ণাটক বিজেপির অভ্যন্তরীণ কোনো গোষ্ঠীর মাধ্যমেই সরবরাহ করা হয়েছে।

অন্যদিকে কংগ্রেস রাজ্য সভাপতি শিবকুমার মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাইকে বিটকয়েন কেলেঙ্কারির বিষয়টি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) কাছে উল্লেখ করে নথি প্রকাশের জন্য অনুরোধ করেছেন। "মুখ্যমন্ত্রী নিজেই বলেছেন যে তিনি কেলেঙ্কারির কথা ইডির কাছে জানিয়েছেন। আমি চাই তিনি এই নথি প্রকাশ করুন।"

কংগ্রেসের সূত্রগ অনুসারে, বিরোধী নেতা সিদ্দারামাইয়া কেলেঙ্কারির নথি সংগ্রহ করছেন এবং রাজ্যের ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করার জন্য সোমবার তিনি এক সাংবাদিক সম্মেলন করবেন।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

ছবি প্রতীকী
Karnataka: বিটকয়েন, ড্রাগ কেলেঙ্কারি তদন্তে উঠে আসছে একাধিক প্রভাবশালী বিজেপি নেতার নাম?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in