Mumbai: আইসক্রিমের মধ্যে মানুষের কাটা আঙুল! কী বক্তব্য অভিযুক্ত আইসক্রিম সংস্থার?

People's Reporter: ওয়ালকো ফুড কোং লিমিটেড জানিয়েছে আপাতত ম্যানুফ্যাকচারিং-এর ক্ষেত্রে আউটসোর্সিং সম্পূর্ণ বন্ধ করছে। বিভিন্ন দোকানে যত পরিমাণ আইসক্রিম সরবরাহ করা হয়েছিল তার সবটাই ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

আইস্ক্রিমের মধ্যে মানুষের আঙুল! মুম্বাইয়ের এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ানোর পর অভিযুক্ত ইয়োম্মো (Yummo) ব্র্যান্ডের প্রস্তুতকারক আইসক্রিম সংস্থা ওয়ালকো ফুড কোং লিমিটেড বৃহস্পতিবার জানিয়েছে আপাতত তাদের সংস্থা ম্যানুফ্যাকচারিং-এর ক্ষেত্রে আউটসোর্সিং সম্পূর্ণ বন্ধ করছে। এছাড়াও বিভিন্ন দোকানে যত পরিমাণ আইসক্রিম সরবরাহ করা হয়েছিল তার সবটাই ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

এক বিবৃতিতে কোম্পানির প্রতিনিধি জানিয়েছেন, আমরা এই বিষয়টিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। আমরা বাইরের সংস্থাকে দিয়ে আইসক্রিম তৈরি বন্ধ রাখছি। আমরা ইতিমধ্যেই আমাদের ওয়্যারহাউসে ওই পণ্যকে সম্পূর্ণ আলাদা করে দিয়েছি। একইভাবে বাজার থেকেও ওই পণ্য সম্পূর্ণভাবে তুলে নেওয়া হচ্ছে।

কোম্পানির পক্ষ থেকে গতকাল এক ক্রেতার আনা অভিযোগ স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। মালাড পশ্চিমের ডাক্তার ব্র্যান্ডন সেরাও এই অভিযোগ আনেন। তিনি জানিয়েছিলেন, এক ডেলিভারি পার্টনারের মাধ্যমে আনানো আইসক্রিমে মানুষের আঙুলের টুকরো পাওয়া গেছে।

কোম্পানির প্রতিনিধি এই বিষয়ে জানিয়েছেন, আমাদের কাছে পণ্যের গুণমান এবং সুরক্ষা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। ডঃ সেরাও পুলিশে এই বিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন এবং আমাদেরও পুরো বিষয়টি জানিয়েছেন।

ওই প্রতিনিধি আরও জানিয়েছেন, আমাদের সংস্থা সম্পূর্ণরূপে আইন মেনে চলে এবং আমরা এই বিষয়ে যথাযথ তদন্তের জন্য আধিকারিকদের সঙ্গে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করব।

প্রশাসনিক সূত্র অনুসারে, স্টেট ফুড অ্যান্ড ড্রাগস অথরিটি (এফডিএ) এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে পারে। যদিও সংস্থার আধিকারিকরা এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি।

বুধবার ডাঃ ব্র্যান্ডন সেরাও অনলাইনে আইসক্রিমের অর্ডার দিয়েছিলেন। তাঁকে যে আইসক্রিম ডেলিভারি দেওয়া হয় তার মধ্যেই তিনি মানুষের আঙুলের টুকরো পান।

ডাঃ সেরাও জানিয়েছেন সেই আইসক্রিম মুখে দেবার পরেই তাঁর মুখে শক্ত মতো কিছু আটকায়। তা মুখ থেকে বের করে তিনি দেখতে পান সেটা একটা মানুষের আঙুলের অংশ বিশেষ, দু ইঞ্চি মত লম্বা। যদিও প্রথমে তিনি এটিকে বড় কোনও বাদাম ভেবেছিলেন।

এরপরেই এই বিষয়ে মালাড পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করেন ডাঃ সেরাও। সেখানে তিনি তদন্তের পাশাপাশি ওই আঙুলের টুকরোর ফরেনসিক পরীক্ষারও দাবি জানিয়েছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে ডঃ সেরাও জানিয়েছেন, তাঁর চিকিৎসা সংক্রান্ত অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে তিনি ওই টুকরোটিকে মানুষের আঙুল বলে বুঝতে পারেন এবং তা বরফ দিয়ে মুড়ে রাখেন, যাতে অভিযোগ দায়ের করার সময় তিনি পুলিশকে ওই অংশটি দেখাতে পারেন।

(Except for the headline, this story has not been edited by People's Reporter and is translated and published from a syndicated feed.)

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in