এলগার পরিষদ মামলা NIA-র কাছে হস্তান্তরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন, ‘নকশাল প্লেগ’ তকমা NIA-র
সুরেন্দ্র গাডলিং ও সুধীর ধাওয়ালেফাইল চিত্র

এলগার পরিষদ মামলা NIA-র কাছে হস্তান্তরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন, ‘নকশাল প্লেগ’ তকমা NIA-র

অভিযুক্তদের দাবি, কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে এমন কোনও আইন নেই যেখানে মামলাটি শেষ হওয়ার পর অন্য কোনও সংস্থার হাতে মামলাটি হস্তান্তর করা যায়।

এলগার পরিষদ মামলা NIA-র কাছে হস্তান্তরের বিরোধিতা করে বম্বে হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন অভিযুক্ত সুরেন্দ্র গাডলিং ও সুধীর ধাওয়ালে। এমনিতেই নকশাল তকমা দেওয়া হয়েছে তাঁদের। জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে মামলাটি হস্তান্তর করে পুরো বিষয়টি নিজেদের মতো করে চালানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও আবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

অবশ্য বম্বে হাইকোর্টে এনআইএ (NIA) এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে - তাঁরা 'মাওবাদী প্লেগ'-এর বিরুদ্ধে লড়ছেন, যারা জাতীয় সুরক্ষার ক্ষেত্রে বিপদজকনক। পিটিশনকারীরা এই তাঁদের তদন্তকে নষ্ট করা চেষ্টা করছে।

প্রসঙ্গত, ২ মাস আগে আবেদনকারীদের একটি হলফনামা দেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন অভিযুক্তদের পক্ষের আইনজীবী সতীশ বি তালেকর। তিনি জানান, এখনও পর্যন্ত কেন্দ্র বা মহারাষ্ট্র সরকারও এবিষয়ে কোনও উচ্চবাচ্য করেনি। এনআইএ-র পক্ষের আইনজীবী সন্দেশ পাটিল তদন্তকারী সংস্থার তরফে বলেন, সেই বিষয়ে তিনি অবহিত নন। আগে এনআইএ-র পক্ষের আইনজীবী এই হলফনামা ফাইল করে থাকবেন। বিষয়টি দেখতে এক সপ্তাহ সময়ও চেয়ে নিয়েছেন তিনি।

এলগার পরিষদ মামলায় পুণে পুলিশ গাডলিং ও ধাওয়ালের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলায় একটি এফআইআর দায়ের করে। ২০২০ সালের ২৪ জানুয়ারি মামলাটি এনআইএ-র হাতে হস্তান্তর করা হয়। জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে বিষয়টি যত দ্রুত সম্ভব এনআইএ-র কাছে সম্পূর্ণরূপে হস্তান্তর করতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

অভিযুক্তদের দাবি, এফআইআর হওয়ার ২ বছর পরও এনআইএ-র কাছে মামলাটি হস্তান্তর করার কোনও যুক্তি দেখানো হয়নি। এমনকী, কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে এমন কোনও আইন নেই যেখানে মামলাটি শেষ হওয়ার পর অন্য কোনও সংস্থার হাতে মামলাটি হস্তান্তর করা যায়। মহারাষ্ট্রের মহাবিকাশ আগাধি জোট সরকারের সিট গঠনের প্রস্তাবের পরেও শুধুমাত্র রাজনৈতিক কারণে মামলাটি এনআইএ-র হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে অভিযোগ গাডলিং ও ধাওয়ালের।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এলগার পরিষদ-মাওবাদী মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছিলেন সমাজকর্মী ফাদার স্ট্যান স্বামী। সম্প্রতি তাঁর মৃত্যু হয়েছে। দীর্ঘদিন জেলেবন্দী থাকা স্বত্বেও তাঁর বিরুদ্ধে কোনরকম চার্জ গঠন করতে ব্যর্থ হয়েছে এনআইএ।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in