বেঙ্গালুরু বিশ্ববিদ্যালয়ে গণেশ মন্দির নির্মাণ কর্তৃপক্ষের - প্রতিবাদ পড়ুয়াদের, উত্তাল পরিস্থিতি

উচ্চশিক্ষা দফতর জানিয়েছে, যে কোনও মূল্যে ক্যাম্পাসে মন্দির তৈরি করা হবে। হিন্দু বিরোধী শক্তি চক্রান্ত করে এর বিরোধিতা করছে। বিক্ষোভকারী পড়ুয়ারা ওপেন চ্যালেঞ্জ করে জানিয়েছে, তারা মন্দির গড়তে দেবে না।
বেঙ্গালুরু বিশ্ববিদ্যালয়ে গণেশ মন্দির তৈরির প্রতিবাদে সরব ছাত্রছাত্রীরা
বেঙ্গালুরু বিশ্ববিদ্যালয়ে গণেশ মন্দির তৈরির প্রতিবাদে সরব ছাত্রছাত্রীরা

ব্যাঙ্গালোর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে গণেশ মন্দির তৈরি করা নিয়ে উত্তজনা চরমে উঠেছে। পড়ুয়াদের অভিযোগ, ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ভিতরে গণেশ মন্দির নির্মাণের অনুমতি দিয়ে ক্যাম্পাসকে গেরুয়াকরণ করার চেষ্টা করছে।

মন্দির নির্মাণের প্রতিবাদে গত তিন দিন ধরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন পড়ুয়ারা।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করায় বিষয়টি এই মুহূর্তে চরম আকার ধারণ করেছে।

বেঙ্গালুরু বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডক্টর জয়কারা শেট্টি বলেন, মন্দির নির্মাণের সিদ্ধান্ত তাঁর আমলে নেওয়া হয়নি। এই সিদ্ধান্ত আগেই নেওয়া হয়েছিল। এখন নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। মন্দির নির্মাণের এই বিষয়ে পড়ুয়ারা প্রতিবাদ করতে পারে না।

তবে, পড়ুয়াদের প্রবল বিক্ষোভের জেরে মন্দির নির্মাণের কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন শেট্টি।

শুধু পড়ুয়ারা নয়, মন্দির নির্মাণের প্রতিবাদে সরব হয়েছে ‘নাইজা হোরাটাগারার বেদিকে’, ‘পোস্ট-গ্র্যাজুয়েশন অ্যান্ড রিসার্চ স্টুডেন্টস ফেডারেশন’-সহ একাধিক ছাত্র সংগঠন।

হুঁশিয়ারির সুরে সকলে জানিয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যদি মন্দির নির্মাণের কাজ চালিয়ে যায়, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে। আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ছাত্র সংগঠনগুলি।

আন্দোলনকারী পড়ুয়াদের অভিযোগ, বিজেপি ক্যাম্পাসকে গেরুয়াকরণের উদ্যোগ নিয়ে নিজেদের ‘গোপন এজেন্ডা’ বাস্তবায়নের চেষ্টা করছে। পড়ুয়াদের দাবি, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বা UGC-র নির্দেশিকা ও আইন অনুযায়ী ক্যাম্পাসের ভিতরে মন্দির, মসজিদ ও গির্জার মতো ধর্মীয় উপাসনালয় নির্মাণ করা যায় না।

পড়ুয়ারা জানান, বিশ্ববিদ্যালয় জ্ঞান অর্জনের জায়গা, ধর্মচর্চার নয়। তাই ব্যাঙ্গালোর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে মন্দির স্থাপনের বিরোধিতা করা হচ্ছে।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তারা জানান, কয়েক বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্ঞানভারতী ক্যাম্পাসে আগে একটি গণেশ মন্দির ছিল। কিন্তু রাস্তা চওড়া করার কারণে তা ভাঙা পড়ে। সেই সময় মন্দিরকে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরেই অন্যত্র সরানোর জন্য ব্রুহাত বেঙ্গালুরু মহানগর পালিকা (BBMP)-র সঙ্গে একটি চুক্তি করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, উচ্চশিক্ষা দফতর জানিয়েছে, যে কোনও মূল্যে ক্যাম্পাসে মন্দির তৈরি করা হবে। বিরোধী দল এবং হিন্দু বিরোধী শক্তি চক্রান্ত করে এর বিরোধিতা করছে।

তবে, বিক্ষোভকারী পড়ুয়ারা ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’ করে জানিয়েছে, তারা ক্যাম্পাসে মন্দির গড়তে দেবেন না।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in