Farmer Protest: কোভিড পরিষেবায় দিল্লি সীমান্তের এক পাশের রাস্তা খুলে দেওয়ার আবেদন কৃষকদের

ব্যারিকেড খুলে দেওয়া হোক বলে পুলিশকে আবেদন করা হয়েছে। যাতে অক্সিজেন, অ্যাম্বুল্যান্সের মতো জরুরি পরিষেবা এই রাস্তা দিয়ে সহজে দিল্লিতে প্রবেশ করতে পারে।
Farmer Protest: কোভিড পরিষেবায় দিল্লি সীমান্তের এক পাশের রাস্তা খুলে দেওয়ার আবেদন কৃষকদের
হরতীর্থ সিং-এর ট্যুইটারের সৌজন্যে

কোভিড পরিস্থিতিতে দিল্লি সীমান্ত খুলে দেওয়ার আবেদন করেছেন আন্দোলনরত কৃষকরা। যাতে এই রাস্তাগুলো দিয়ে অক্সিজেন, অ্যাম্বুল্যান্সের মতো জরুরি পরিষেবা সহজে কাজ করতে পারে। গত ২৫ এপ্রিল কৃষক আন্দোলন ১৫০দিন পূর্ণ করেছে। এই উপলক্ষে ইমেল মারফত স্থানীয় পুলিশের কাছে আবেদন করেছেন কৃষকরা।

কৃষক নেতা দর্শন পল, গুরনাম সিং চারুনি, হান্নান মোল্লা, জগজিৎ সিং দাল্লেওয়াল এবং জোগিন্দর সিং উগরাহান এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের সুবিধার স্বার্থে তাঁরা দিল্লি সীমান্তের এক পাশের রাস্তা ফাঁকা ও পরিষ্কার করে দিয়েছেন। সুপারিনটেনডেন্ট অফ পুলিশকে লেখা চিঠিতে কৃষক নেতারা লিখেছেন, দিল্লির সিঙ্ঘু সীমান্তের পেট্রোল পাম্পের দিকের ব্যারিকেড খুলে দেওয়া হোক বলে সোনেপত পুলিশকে আবেদন করা হয়েছে। যাতে অক্সিজেন, অ্যাম্বুল্যান্সের মতো জরুরি পরিষেবা এই রাস্তা দিয়ে সহজে দিল্লিতে প্রবেশ করতে পারে।

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, আগের বৈঠকগুলোতে প্রশাসনের তরফে দিল্লি পুলিশের সঙ্গে সহযোগিতার মাধ্যমে এই সীমান্তের এক পাশের রাস্তা খুলে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। যদিও প্রশাসন এখনও পর্যন্ত চুক্তি অনুসারে কোনও পদক্ষেপই করেনি। ইতিমধ্যেই সংযুক্ত কিষান মোর্চার ভলান্টিয়াররা সিঙ্ঘু,গাজিপুর, টিকরি শাহজাহানপুর সীমান্তে 'কোভিড ওয়ারিয়র' হিসেবে কাজ করছেন।

টিকরি সীমান্তে ক্যাম্প করে টিকাকরণ ও জরুরি পরিষেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ড. সাওয়াইমান সিংয়ের নেতৃত্বে একটি মেডিক্যাল টিম আন্দোলনরত কৃষকদের কাছে পৌঁছে গিয়ে করোনা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সুরক্ষাবিধি পালনের আবেদন করেছেন। কৃষকদের মাস্ক ও অন্যান্য জরুরি সরঞ্জামও সরবরাহ করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in