কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আজ থেকে যন্তর মন্তরে বিক্ষোভ কৃষকদের, 'কিষাণ সংসদ' কর্মসূচি পালন

বাদল অধিবেশন শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতিটি ওয়ার্কিং ডে-তে যন্তর মন্তরে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে 'কিষাণ সংসদ' কর্মসূচি পালন করবেন আন্দোলনরত কৃষকরা।
কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আজ থেকে যন্তর মন্তরে বিক্ষোভ কৃষকদের, 'কিষাণ সংসদ' কর্মসূচি পালন
ফাইল ছবি সংগৃহীত

সংসদের বাদল অধিবেশনের মাঝেই কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে রাজধানীর কেন্দ্রস্থলে আজ থেকে আন্দোলনে বসছেন কৃষকরা। দিল্লি ডিজাস্টার ম‍্যানেজমেন্ট অথরিটি (DDMA) যন্তর মন্তরে কৃষকদের বিক্ষোভ প্রদর্শনের অনুমতি দিয়েছে।

বাদল অধিবেশন শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতিটি ওয়ার্কিং ডে-তে যন্তর মন্তরে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে 'কিষাণ সংসদ' কর্মসূচি পালন করবেন আন্দোলনরত কৃষকরা।

দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, কৃষক সংগঠন সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা(SKM) এবং কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটি (KMSC)-র সাথে একাধিকবার আলোচনার পরে এবং তাদের পক্ষ থেকে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের লিখিত প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরে, DDMA-র সম্মতিতে ২২ জুলাই থেকে ৯ আগস্ট পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৫টা পর্যন্ত যন্তর মন্তরে বিক্ষোভ প্রদর্শনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে কৃষকদের। SKM থেকে ২০০ জন সদস্য এবং KMSC-র ছ'জন সদস্যের বেশি কারো উপস্থিত থাকা যাবে না আন্দোলন স্থলে। শনিবার ও রবিবার আন্দোলনের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যাঁদের আইডি কার্ড আছে কেবল তাঁদেরই যন্তর মন্তরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে। সিঙ্ঘু বর্ডার, যেখানে গত নভেম্বর থেকেই আন্দোলন দেখাচ্ছেন কৃষকরা, সেখান থেকে বাসে করে ১১টার সময় কৃষকদের বিক্ষোভ স্থলে পৌঁছে দেবে পুলিশের এসকর্ট। আবার ৫টার পর সেখান থেকে একই ভাবে সিঙ্ঘু সীমান্তে পৌঁছে দেওয়া হবে তাঁদের।

বিক্ষোভ প্রদর্শনের সময় কৃষকদের যথাযথভাবে কোভিড বিধি মানতে এবং সোশ্যাল ডিস্ট‍্যান্সিং বজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দিল্লি সরকারও সমস্ত কোভিড প্রোটোকল মেনে কৃষকদের বিক্ষোভ প্রদর্শনের অনুমতি দিয়েছে।

কৃষক নেতা দর্শন পাল সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, "২০০ জন কৃষকের একটি দল চারটি বাসে করে গিয়ে সংসদীয় রাস্তায় 'কিষাণ সংসদ' কর্মসূচি পালন করবেন। তিনটি কৃষি আইন ও এমএসপি নিয়ে আলোচনা করবো সেখানে। আমরা ছয় সদস্যের একটি স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করেছি যেখানে পাঞ্জাবের তিনজন সদস্য রয়েছেন।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in