পিছু হটবেন না, এই সরকারকে হারাতেই হবে - মুজফ্ফরনগরের মহাপঞ্চায়েতে প্রিয়ঙ্কা গান্ধী

"আখ চাষীদের বকেয়া ১৫ হাজার কোটি টাকা। প্রধানমন্ত্রী ১৬ হাজার টাকা দিয়ে দুটি বিমান কিনেছেন। ২০ হাজার কোটি টাকা দিয়ে নতুন পার্লামেন্ট করছেন। কিন্তু আখ চাষীদের পাওনা পরিশোধ হয়নি।"
পিছু হটবেন না, এই সরকারকে হারাতেই হবে - মুজফ্ফরনগরের মহাপঞ্চায়েতে প্রিয়ঙ্কা গান্ধী
মুজফ্ফরনগরের মহাপঞ্চায়েতে প্রিয়ঙ্কা গান্ধীপ্রিয়ঙ্কা গান্ধীর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

উত্তরপ্রদেশের মুজফ্ফরনগরে কৃষকদের মহাপঞ্চায়েতে বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্র সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর তীব্র সমালোচনা করলেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। কৃষকদের আরো শক্তিশালী হওয়ার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, "এই সরকার দুর্বল... সরকারকে পরাজিত করতেই হবে।" প্রসঙ্গত, গত তিনমাস ধরে বিতর্কিত তিন কৃষি আইন প্রত‍্যাহারের দাবিতে দিল্লি সীমান্তে আন্দোলন চালাচ্ছেন দেশের লক্ষ লক্ষ কৃষক।

গত ১৫ দিনে তিনটি কৃষক মহাপঞ্চায়েতে অংশ নিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। মুজফ্ফরনগরের সভা থেকে কৃষকদের তিনি বলেন, কৃষকদের স্বার্থ নিয়ে সরকারের কোনো মাথাব্যথা নেই। তিনি বলেন, "প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন আখ চাষীদের বকেয়া টাকা প্রদান করা হবে। আপনাদের উপার্জন দ্বিগুণ হবে। আখ চাষীদের বকেয়া ১৫ হাজার কোটি টাকা। প্রধানমন্ত্রী ১৬ হাজার টাকা দিয়ে দুটি বিমান কিনেছেন।... ২০ হাজার কোটি টাকা দিয়ে নতুন পার্লামেন্ট করছেন। কিন্তু আখ চাষীদের পাওনা পরিশোধ হয়নি।"

"গ‍্যাসের দামও বাড়ছে... ২০১৮ সালে ডিজেলের দাম ছিল ৬০ টাকা, এখন তা প্রায় ৯০ টাকা ছুঁই ছুঁই। ডিজেলের ওপর থাকা কর থেকে গত বছর ৩.৫ কোটি টাকা উপার্জন করেছে সরকার। সেই টাকা কোথায় গেল? যাঁরা নিজেদের ঘামের বিনিময়ে এই দেশকে এগিয়ে যাচ্ছেন, তাঁরা কেন টাকা পেলেন না? কেন সরকার কৃষকদের কথা শুনছে না?", প্রশ্ন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদকের।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে সনিয়া-কন‍্যা বলেন, "আমাদের প্রধানমন্ত্রী চীনে যেতে পারেন, আমেরিকা যেতে পারেন, কিন্তু কৃষকদের কাছে যেতে পারেন না। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন থেকে দিল্লি সীমান্ত পাঁচ-ছয় কিলোমিটার দূরে... কিন্তু রাজধানীর সীমান্তকে দেশের সীমানা বানিয়ে দেওয়া হয়েছে। লক্ষাধিক কৃষক ৯০ দিনেরও বেশি সময় ধরে দিল্লি সীমান্তে বসে আছেন। ২১৫ জন কৃষক মারা গেছেন। বিদ‍্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কৃষকদের ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে। অথচ প্রধানমন্ত্রী সংসদে দাঁড়িয়ে কৃষকদের 'পরিবার' বলে অভিহিত করছেন। উনি আসলে কৃষকদের নিয়ে মজা করছেন।"

কৃষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, "আমি এখানে রাজনীতির জন্য আসিনি। আমি আবারও আসব এখানে। আমরা আপনাদের সাথে লড়াই করব। পিছু হটবেন না, এই সরকার দুর্বল। এই সরকারকে পরাজিত করতেই হবে।"

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in