সাধারণ মানুষের অসুবিধা হয়, এমন ব্যানার-হোর্ডিং লাগানো যাবে না, দলীয় কর্মীদের নির্দেশ DMK-র

দলীয় অর্গানাইজেশনের সেক্রেটারি ও রাজ্যসভার সাংসদ আরএস ভারাথি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, 'এই নির্দেশ যারা অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে।'
সাধারণ মানুষের অসুবিধা হয়, এমন ব্যানার-হোর্ডিং লাগানো যাবে না, দলীয় কর্মীদের নির্দেশ DMK-র
মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিনফাইল চিত্র - সংগৃহীত

তামিলনাড়ুতে সাধারণ মানুষের অসুবিধা হয়, এমন কোনও ব্যানার বা হোর্ডিং যাতে লাগানো না হয়। শাসক ডিএমকে (DMK) এমনই নির্দেশ দিয়েছে পার্টি ক্যাডার ও নীচুস্তরের নেতাদের।

দলীয় অর্গানাইজেশনের সেক্রেটারি ও রাজ্যসভার সাংসদ আরএস ভারাথি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, 'এই নির্দেশ যারা অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে।' তিনি আরও বলেন, এই ধরনের ব্যানার, পোস্টারের কারণে দৃশ্যমানতা ঠিক না থাকায় অনেক দুর্ঘটনা ঘটেছে আগের এআইএডিএমকে-র আমলে। সেই থেকে শিক্ষা নিয়ে এখন থেকে সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ডিএমকে নেতা জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী এমকে স্ট্যালিনই এমনই নির্দেশ দিয়েছেন। যাতে দলীয় নেতা-কর্মীরা হোর্ডিং সংস্কৃতির দিকে নজর না দিয়ে, তৃণমূলস্তরের মানুষের স্বার্থে কাজ করার বিষয়ে মনোনিবেশ করতে পারেন।

ভারাথি আরও বলেন, এম কে স্ট্যালিন প্রথম রাজনৈতিক নেতা যিনি, মাদ্রাজ হাইকোর্টে লিখিতভাবে জানিয়েছেন, দলের তরফে কোনও ব্যানার বা হোর্ডিং টানানে হবে না রাজ্যে।দলের বেশিরভাগই কর্মীই এই সিদ্ধান্তে সহমত হয়েছেন। কিন্তু কিছু সংখ্যক মানুষ এই বিষয়টিকে মেনে নিতে পারছেন না কোনও মতেই। কিন্তু যারা এই মতাদর্শে বিশ্বাস করছেন, তাদের সকলের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে বলেও দলের তরফে জানানো হয়েছে। কোথাও কোনও ব্যানার টানাতে হলেও দলীয় নেতৃত্বের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। এই বিষয়টিতে নজরদারি চালাবে দলীয় প্রধান কার্যালয়।

দলের এক নেতা জানিয়েছেন, তামিলনাড়ুর বিভিন্ন জায়গা থেকে পার্টির কার্যালয়ে হোর্ডিং টানানো নিয়ে অভিযোগ আসছিল। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন।

- With IANS inputs

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in