নতুন তথ্যপ্রযুক্তি বিধি: স্থগিতাদেশ জারিতে অসম্মত দিল্লি হাইকোর্ট

সোমবার দিল্লি হাইকোর্ট-এর পক্ষ থেকে নতুন তথ্য প্রযুক্তি নিয়মাবলীর ওপর স্থগিতাদেশ জারি করতে অসম্মত হয়েছে। আবেদনকারীরা জানিয়েছিলেন, নতুন এই বিধি ডিজিটাল নিউজ মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে।
নতুন তথ্যপ্রযুক্তি বিধি: স্থগিতাদেশ জারিতে অসম্মত দিল্লি হাইকোর্ট
দিল্লি হাইকোর্ট ফাইল ছবি সংগৃহীত

সোমবার দিল্লি হাইকোর্ট-এর পক্ষ থেকে নতুন তথ্য প্রযুক্তি নিয়মাবলীর ওপর স্থগিতাদেশ জারি করতে অসম্মত হয়েছে। আবেদনকারীরা জানিয়েছিলেন, নতুন এই বিধি ডিজিটাল নিউজ মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে।

ফাউন্ডেশন ফর ইন্ডিপেন্ডেন্ট জার্নালিজম, দ্য ওয়্যার, কুইন্ট ডিজিটাল মিডিয়া লিমিটেড এবং অল্ট নিউজের মূল সংস্থা প্রাভদা মিডিয়া ফাউন্ডেশন তথ্য প্রযুক্তি (মধ্যস্থতাকারী গাইডলাইনস এবং ডিজিটাল মিডিয়া এথিক্স কোড) বিধিমালা, ২০২১, ২০২০ স্থগিতের জন্য দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছিল। আবেদনকারীরা যুক্তি দেখিয়েছেন যে বিধি মেনে চলার জন্য তাদেরকে নতুন করে নোটিশ জারি করা হয়েছে অন্যথায় জোর করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিচারপতি সি হরি শঙ্কর ও সুব্রহ্মনিয়াম প্রসাদের একটি অবকাশকালীন বেঞ্চ জানিয়েছে, যে বিষয়টি রেগুলার ডিভিশন বেঞ্চের কাছে বিচারাধীন। তাঁরা আরও জানিয়েছেন, যে কেবলমাত্র নির্দেশিকা বাস্তবায়নের জন্য তাদের নোটিশ জারি করা হয়েছিল, যার উপর কোনও স্থগিতাদেশ জারি হচ্ছেনা।

বিচারপতি শঙ্কর আরও বলেন, "তারা যা করছেন তা শুধু নির্দেশিকার বাস্তবায়ন করছেন। আপনারা মামলা করেছেন যাতে আপনাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়া হয়। আইনটি এই বিধি-বিধানের পরিপন্থী নয় এটা আপনাদের বিষয় নয়।"

বেঞ্চ আবেদনকারীদের পক্ষের আইনজীবীকে জানায়, "আমরা আপনার সাথে একমত নই। আপনি চাইলে আমরা একটি যুক্তিসঙ্গত বিস্তারিত আদেশ দেব বা আপনি চাইলে রোস্টার বেঞ্চের সামনে এটিকে নতুন করে জানাতে পারি"। বেঞ্চ তাদের পরামর্শে এই বিষয়ে নির্দেশনা গ্রহণ এবং তা অবহিত করতে বলেছেন।

নিউজ পোর্টালগুলির পক্ষে হাজির হয়ে সিনিয়র অ্যাডভোকেট নিত্য রামকৃষ্ণন, ছুটির পর আদালত পুনরায় খুললে বিষয়টি পুনরায় তালিকাভুক্ত করার নির্দেশ দেওয়ার জন্য আদালতকে অনুরোধ করেন। সংশোধিত আইটি বিধি অনুসারে, স্ট্রিমিং সংস্থাগুলি এবং সোশ্যাল মিডিয়াগুলি বিতর্কিত বিষয়বস্তু সরিয়ে নেওয়ার, অভিযোগ নিরসনকারী কর্মকর্তাদের নিয়োগ এবং তদন্তে সহায়তা করা বাধ্যতামূলক। হাইকোর্ট-এর পক্ষ থেকে এই আবেদন আগামী ৭ জুলাই রোস্টার বেঞ্চের কাছে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in