Gujarat: সবরমতী আশ্রম থেকে সরানো হবে একশোর বেশি দলিত পরিবারকে! আদালতের রায়ে জল্পনা শুরু

গুজরাট হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন গান্ধীজীর প্রপৌত্র তুষার গান্ধী। বিচারপতি অরবিন্দ কুমার এবং বিচারপতি এ জে শাস্ত্রীর বেঞ্চ আবেদন খারিজ করে দেয়।
সবরামতী আশ্রম
সবরামতী আশ্রমছবি - গুজরাট ট্যুরিজম

সবরমতী আশ্রমকে সাজিয়ে বিশ্বমানের পর্যটন কেন্দ্র তৈরি করবে কেন্দ্রীয় সরকার। তার ফলে অন্যত্র চলে যেতে হবে ঐ আশ্রমে বসবাসকারী প্রায় শতাধিক দলিত পরিবারকে। যার বিরোধিতা করে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন তুষার গান্ধী। আদালতে বৃহস্পতিবার তা খারিজ হয়।

মহাত্মা গান্ধীর সবরমতী আশ্রমে এতদিন বাস করতেন বহু দলিত পরিবার। যাঁরা হরিজন নামে পরিচিত। এবার তাঁদের আশ্রম ছেড়ে চলে যতে হবে অন্য জায়গায়। অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছেন তাঁরা। পরিবারগুলির কথা ভেবে গুজরাট হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন গান্ধীজীর প্রপৌত্র তুষার গান্ধী।

তুষারের বক্তব্য, কেন্দ্রের এই প্রকল্প গান্ধীজীর চিন্তাধারার বিরুদ্ধে। গান্ধীজীর মতাদর্শের সাথে বিজেপির মতাদর্শ মেলে না। বিচারপতি অরবিন্দ কুমার এবং বিচারপতি এ জে শাস্ত্রীর বেঞ্চ আবেদন খারিজ করে দেয়। বেঞ্চের তরফ থেকে বলা হয়, প্রকল্পটির মাধ্যমে গান্ধীর চিন্তাধারা কোনও ভাবেই ক্ষুণ্ণ হবে না। এর ফলে সমাজ ও মানবজাতির কল্যাণ হবে।

আদালত এও বলে, আশা করা যায় সরকার আশ্রমের পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। পাঁচ একরের আশ্রমের কোনও ক্ষতি করবে না সরকার। আশ্রম যেমন ছিল ঠিক তেমনি রাখবে সরকার। ফলে গুজরাট সরকারের কোনও বাধা থাকল না প্রকল্পটির ক্ষেত্রে।

কেন্দ্রীয় সরকার সবরমতী আশ্রমকে বিশ্বমানের পর্যটন কেন্দ্র রূপে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দিতে চাইছে। কেন্দ্র ও গুজরাট সরকারের যৌথ উদ্যোগেই এই প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এই প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছিলেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত করতে ১ হাজার কোটি টাকারও বেশি খরচা হবে।

সবরামতী আশ্রম
UNDP Report: মোদী জমানায় মানব সম্পদ উন্নয়ন সূচকে (HDI) লাগাতার পতন ভারতের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in