Cyclone Asani: ফের অশনির গতিপথ বদল, রেড অ্যালার্ট জারি করল আবহাওয়া দপ্তর

বুধবার রাজ্যের ৫টি জেলায় বিক্ষিপ্তভাবে বজ্রবিদ্যুৎসহ ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করল মৌসম ভবন। আগামী শনিবার পর্যন্ত আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়িসহ আরও বেশকিছু জেলায় ভারী বৃষ্টিসহ বইবে ঝোড়ো হাওয়া।
Cyclone Asani: ফের অশনির গতিপথ বদল, রেড অ্যালার্ট জারি করল আবহাওয়া দপ্তর
ছবি - সংগৃহীত

মঙ্গলবার আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছিলেন, সমুদ্র উপকূলের দিকে প্রবেশ করার পর উপকূলবর্তী স্থলভাগের দিকে আর ফেরার সম্ভাবনা নেই অশনির। কিন্তু মঙ্গলবার রাতের পর থেকেই গতিপথ বদল হয়। তাঁরা জানিয়েছেন, অন্ধ্র উপকূলের কাঁকিনাড়ার কাছে স্থলভাগে প্রবেশ করার পর কিছুক্ষণ থেকে সমুদ্রে ফিরে যাবে অশনি।

ইতিমধ্যেই আবহাওয়া দপ্তরের তরফে উপকূলবর্তী অঞ্চল গুলিতে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। বাতিল হয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের বিমান পরিষেবা এবং ৪০ টি ট্রেন। শুধু তাই নয়, ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে জরুরি পরিস্থিতিতে পূর্বনির্ধারিত বোর্ড পরীক্ষা পিছিয়ে দিল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।

তবে মৌসম ভবনের কথায়, স্থলভাগে প্রবেশকালে ঝড়ের তীব্রতা কিছুটা কম থাকায় ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা তুলনামূলক কম। তাঁদের পূর্বাভাস অনুযায়ী, বুধবার সকালেই অন্ধ্র উপকূলে প্রবেশ করে অশনি মছলিপুরম, নরসাপুর, ইয়ানম, কাঁকিনাড়া, টুনি হয়ে সমুদ্রে ফিরে যাবে।

আবহাওয়া দপ্তরের এক আধিকারিক অনন্ত কুমার দাস জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাত থেকে তীব্রতা কমে ‘অশনি’ সাধারণ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ায় ঝড়ের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৮৫ থেকে ৯৫ কিলোমিটারের মধ্যে। তিনি আরও বলেন, ‘‘উপকূলের দিকে আপাতত ১২ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় এগোচ্ছে অশনি। তবে যত দ্রুত তার শক্তি ক্ষয় হওয়ার কথা ছিল, তা হয়নি।’’ অনন্তের ব্যাখ্যা, ‘‘গত কয়েক ঘণ্টায় ঝড়ের আকৃতি ছোট হয়েছে তাতেই কিছুটা শক্তি সঞ্চয় করতে পেরেছে সেটি।’’

অন্যদিকে, ঘূর্ণিঝড় অশনির প্রভাবে ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা এ রাজ্যে অনেকটাই কম বলছে মৌসম ভবন। তবে বুধবার থেকে শনিবার পর্যন্ত রাজ্যের ৫টি জেলায় বিক্ষিপ্ত ভাবে বজ্রবিদ্যুৎসহ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। বাকি জেলায় মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। শুক্রবার পর্যন্ত মৎসজীবীদের সমুদ্রে যেতে এবং বুধবার পর্যন্ত পর্যটকদের সমুদ্রতীরে প্রবেশ নিষেধ করেছে হাওয়া দপ্তর।

বুধবার গাঙ্গেয় উপত্যকার পাঁচটি জেলা অর্থাৎ পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং নদিয়াতে বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টি (৭০ মিলিমিটার থেকে ১১০ মিলিমিটার) হতে পারে।

হাওয়াবিদরা আরও জানান, বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় তৈরী হওয়ার ফলে উত্তরবঙ্গে প্রচুর পরিমাণ দক্ষিণাবায়ু প্রবেশ করায় আগামী শনিবার পর্যন্ত জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ারে বজ্রবিদ্যুৎসহ প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে। কালিম্পং এবং দার্জিলিং এ বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হতে পারে।

Cyclone Asani: ফের অশনির গতিপথ বদল, রেড অ্যালার্ট জারি করল আবহাওয়া দপ্তর
Cyclone Asani: শক্তি হারিয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত অশনি, উপকূলবর্তী এলাকায় প্রশাসনের জোর নজরদারি

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.