'যা রটছে, সবটাই অসত্য' - কংগ্রেসে যোগদানের জল্পনায় জল ঢাললেন CPI নেতা কানহাইয়া কুমার
কানহাইয়া কুমারফাইল চিত্র

'যা রটছে, সবটাই অসত্য' - কংগ্রেসে যোগদানের জল্পনায় জল ঢাললেন CPI নেতা কানহাইয়া কুমার

কানহাইয়া একা নন, গুজরাটের দলিত নেতা জিগনেশ মেবানিও নাকি এবার সরকারিভাবে কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন, এমনটা শোনা যাচ্ছিল।

কানাঘুষো হচ্ছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। জল্পনাও চলছিল যে, সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার এবার হয়তো কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন। রাহুল গান্ধী-সহ কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ জল্পনা বাড়িয়ে দেয়। তবে সেই জল্পনা উড়িয়ে কানহাইয়া কুমার জানিয়ে দিলেন, জল্পনা পুরোটাই অসত্য।

কানহাইয়া অবশ্য এই ধরনের কোনো বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন - “যা গুজব ছড়িয়েছে তা হল কংগ্রেস নেতা নাদিম জাভেদের সঙ্গে আমার ছবি, যার সঙ্গে আমি সম্প্রতি দিল্লিতে লাঞ্চ করেছি। নাদিম জাভেদ এনএসইউআই (NSUI) -এর প্রাক্তন জাতীয় সভাপতি, ভারতীয় যুব কংগ্রেসের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, কংগ্রেস সংখ্যালঘু সেলের সাবেক জাতীয় সভাপতি এবং মিডিয়া প্যানেলিস্ট। তিনি আমাদের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। ”

শোনা যাচ্ছিল, কানহাইয়ার কংগ্রেসে যোগদানের নেপথ্যে নাকি রয়েছেন রাজনৈতিক কৌশলী প্রশান্ত কিশোর। কানহাইয়া বলেন, "আমি সক্রিয় রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। একটি রেজিস্টার্ড ন্যাশনাল দলের সদস্য। রাজনীতিতে অনেকের সঙ্গেই যোগাযোগ করতে হয়। আমি এখন দিল্লিতে আছি দলীয় সভায় অংশ নিতে।"

কানহাইয়া একা নন, গুজরাটের দলিত নেতা জিগনেশ মেবানিও নাকি এবার সরকারিভাবে কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন, এমনটা শোনা যাচ্ছিল। গত বিধানসভা নির্বাচনে গুজরাটে নির্দল প্রার্থী হিসাবে বিধায়ক নির্বাচিত হন জিগনেশ। তাঁকে কংগ্রেস সমর্থন করে।

প্রসঙ্গত, জেএনইউয়ের ছাত্র সংসদের সভাপতি ছিলেন কানহাইয়া। ছাত্রজীবন শেষে তিনি যোগ দেন কমিউনিস্ট পার্টিতে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিহারের বেগুসরাই থেকে সিপিআই প্রতীকে প্রার্থীও হন তিনি। জিততে না পারলেও সিপিআইয়ের কেন্দ্রীয় কমিটিতে জায়গাও পেয়েছেন তিনি। তবে, সম্প্রতি দলের সঙ্গে তাঁর দুরত্ব বেড়েছিল। তাঁর কাজের পদ্ধতি, ‘উদ্ধত’ আচরণের জন্য দল তাঁকে সতর্কও করে একবার।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in