ইডির হাতে গ্রেফতার হওয়া মন্ত্রীকে 'দেশের গর্ব' বললেন কেজরিওয়াল, তুললেন ‘পদ্মবিভূষণ’ দেওয়ার দাবি

ইডি জানিয়েছে, ২০১৫-১৬ সাল নাগাদ কলকাতার একটি সংস্থার মাধ্যমে হাওয়ালা কান্ড করেন সত্যেন্দ্র জৈন। এরসঙ্গে আপ সরকারও যুক্ত বলে অভিযোগ।
ইডির হাতে গ্রেফতার হওয়া মন্ত্রীকে 'দেশের গর্ব' বললেন কেজরিওয়াল, তুললেন ‘পদ্মবিভূষণ’ দেওয়ার দাবি
সত্যেন্দ্র জৈনের সাথে কেজরিওয়াল ফাইল ছবি

সত্যেন্দ্র জৈন একজন ‘প্রকৃত সৎ এবং দেশ প্রেমিক’ মানুষ । তাঁকে নিয়ে দেশের গর্ব হওয়া উচিত। এমনকি তিনি ‘পদ্ম বিভূষণ’ পাওয়ারও অধিকারী। কিন্তু ইডি তাঁকে ‘মিথ্যা মামলায়’ জড়িয়েছে। বুধবার এমনই দাবি করে ধৃত দলীয় মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনের পাশে দাঁড়িয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী তথা আম আদমি পার্টির প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনকে সোমবার গেপ্তার করেছে ইডি। মঙ্গলবার সত্যেন্দ্র জৈনকে আদালতে তোলা হলে, আগামী ৯ জুন পর্যন্ত তাঁর জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তবে, ইডির হেফাজতে থাকা ক্যাবিনেট মন্ত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন কেজরিওয়াল।

দিল্লির আম আদামি সরকারের একজন গুরুত্বপূর্ণ ক্যাবিনেট মন্ত্রী হলেন সত্যেন্দ্র জৈন। দিল্লির স্বাস্থ্য মন্ত্রক ছাড়াও, বিদ্যুৎ, গৃহ, পিডব্লিউডি, শিল্প, নগরোন্নয়ন, বন্যা, সেচ ও জল মন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন জৈন।

ইডি জানিয়েছে, ২০১৫-১৬ সাল নাগাদ কলকাতার একটি সংস্থার মাধ্যমে হাওয়ালা কান্ড করেন সত্যেন্দ্র জৈন। এরসঙ্গে আপ সরকারও যুক্ত বলে অভিযোগ।

তবে, ধৃত সত্যেন্দ্র জৈনের পাশে দাঁড়িয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তাঁকে সৎ এবং দেশপ্রেমিক বলেছেন। শুধু তাই নয়, আরও একধাপ এগিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমি মনে করি, তাঁকে (সত্যেন্দ্র জৈন) পদ্মভূষণ বা পদ্মবিভূষণের মতো পুরস্কার দেওয়া উচিত।’

কেজরিওয়াল এদিন বলেন, ‘তাঁকে নিয়ে দেশের গর্ব করা উচিত। কারণ, তিনি ‘মহল্লা ক্লিনিকের’ মডেল উপহার দিয়েছেন, যেটি রাষ্ট্রসংঘের (প্রাক্তন) মহাসচিব সহ বিশ্বের লোকেরা পরিদর্শন করেছেন। তিনি এমন একটি স্বাস্থ্য মডেল তৈরি করেছেন, যার মাধ্যমে সাধারণ মানুষ বিনামূল্যে চিকিৎসা পাচ্ছে।’

এদিকে, দিল্লির উপ-মুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়ার অভিযোগ, ‘জৈনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, কারণ হিমাচল প্রদেশে তাঁকে আম আদমি পার্টির ইনচার্জ করা হয়েছিল, যেখানে আসন্ন নির্বাচনে বিজেপি পরাজয়ের আশঙ্কা রয়েছে।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in