কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ট্যুইট ঘিরে বিতর্ক, ট্যুইট মুছলেন ভি কে সিং

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে বড়োসড়ো প্রশ্ন উঠে গেল খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ট্যুইটে। সেই ট্যুইট পরে তিনি ডিলিট করেছেন তবুও ততক্ষণে ভাইরাল হয়ে যায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভি কে সিং-এর ট্যুইট
কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ট্যুইট ঘিরে বিতর্ক, ট্যুইট মুছলেন ভি কে সিং
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভি কে সিং ফাইল ছবি সংগৃহীত

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে বড়োসড়ো প্রশ্ন উঠে গেল খোদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ট্যুইটে। যদিও সেই ট্যুইট পরে তিনি ডিলিট করেছেন তবুও ততক্ষণে ভাইরাল হয়ে যায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভি কে সিং-এর ট্যুইট। যেখানে তিনি গাজিয়াবাদের ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেটকে ট্যাগ করে লিখেছিলেন – আমাকে সাহায্য করুন। আমার ভাই-এর করোনা চিকিৎসার জন্য বেড-এর প্রয়োজন। এই মুহূর্তে গাজিয়াবাদে বেড পাওয়া যাচ্ছে না। স্ক্রীন শট অনুসারে যে ট্যুইটের সময় দুপুর ১২.২০ মিনিট। পরে তিনি জানান নিজের কারোর জন্য তিনি এই ট্যুইট করেননি।

ট্যুইটার থেকে সংগৃহীত স্ক্রীনশট

নরেন্দ্র মোদী মন্ত্রীসভার সদস্য এবং কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন ও হাইওয়ে দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী জেনারেল ভি কে সিং এই ট্যুইট করার পরেই মুহূর্তে সেই ট্যুইট ভাইরাল হয়ে যায়। দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলে ট্যুইট করতে শুরু করেন নেটিজেনরা। তাঁদের প্রশ্ন একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর যদি এই অবস্থা হয় তাহলে সাধারণ মানুষের কী অবস্থা হতে পারে। বিতর্ক ক্রমশ বাড়ছে দেখে কিছুক্ষণ পরেই সেই ট্যুইট মুছে দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা ভি কে সিং।

ভি কে সিং-এর ট্যুইট প্রসঙ্গে শিবসেনা সাংসদ প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী এক ট্যুইটে বলেন – আমরা বুঝতে পেরেছি যে তিনি শুধুমাত্র একটি ট্যুইট ফরোয়ার্ড করেছিলেন। কিন্তু এই ট্যুইট এটাই প্রমাণ করে যে একজন নির্বাচিত সাংসদ তাঁর নির্বাচনী কেন্দ্রে একটা বেড খুঁজে পেতে কতটা অসহায়। আমি আশা করবো যে ওই রোগী সাহায্য পাবেন এবং সুস্থ হয়ে উঠবেন।

এরপর আরও একটি ট্যুইট করেন ভি কে সিং। যেখানে তিনি দাবি করেন ওই ট্যুইট তিনি অন্য একজনের জন্য করেছিলেন। যাতে তিনি তাঁর ভাই-এর চিকিৎসার জন্য বেড পান। তিনি আরও বলেন – সে আমার ভাই নয় এবং আমার রক্তের সম্পর্কেও কেউ নয়। আমি মানবিকতার খাতিরেই এটা করেছিলেন। এর সঙ্গেই যারা তাঁর ট্যুইট নিয়ে ট্রল করেছেন তাঁদের আই কিউ নিয়েও প্রশ্ন তোলেন।

চন্দ্র প্রকাশ রায়-এর ট্যুইটের সময় দুপুর ১.২০ মিনিট
চন্দ্র প্রকাশ রায়-এর ট্যুইটের সময় দুপুর ১.২০ মিনিটছবি চন্দ্র প্রকাশ রায়-এর ট্যুইটের স্ক্রীনশট

যদিও এর পরেও প্রশ্ন থেকেই যায়। কারণ ট্যুইটের সময়। জেনারেল ভি কে সিং-এর ট্যুইটের সময় ছিলো দুপুর ১২.২০ মিনিট। আর যে ব্যক্তির সাহায্যের জন্য তিনি ট্যুইট করেছিলেন বলে দাবি করে সেই ট্যুইট শেয়ার করেছেন সেই ট্যুইটের সময় দুপুর ১.২০ মিনিট। এক্ষেত্রে নেটিজেনদের প্রশ্ন মাননীয় মন্ত্রী কি এক ঘণ্টা আগেই জানতে পেরেছিলেন যে ওই ব্যক্তি এই ধরণের ট্যুইট করবে? যদিও সেই প্রশ্নের উত্তর মেলেনি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in