স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্যর্থতার কারণেই অসম-মিজোরামে সংঘর্ষ: রাহুল গান্ধি

'ঘৃণা ও অবিশ্বাসের চাদর সরাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ অমিত শাহ। যার ফলে দেশের সাধারণ মানুষকে ভুগতে হচ্ছে, প্রাণ দিতে হচ্ছে।'
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্যর্থতার কারণেই অসম-মিজোরামে সংঘর্ষ: রাহুল গান্ধি
রাহুল গান্ধীফাইল ছবি

অসম-মিজোরাম সীমান্তে অশান্তির জেরে সোমবারই প্রাণ গিয়েছে ৬ জন পুলিশকর্মীর। ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর উপরই সম্পূর্ণ দায় চাপিয়েছেন রাহুল গান্ধি। ঘৃণা ও অবিশ্বাসের চাদর সরাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ অমিত শাহ। যার ফলে দেশের সাধারণ মানুষকে ভুগতে হচ্ছে, প্রাণ দিতে হচ্ছে।

সোমবার অসমের চাচর জেলার ও মিজোরামের কোলাসিব জেলার সীমানায় বিবাদ নিয়ে সোমবার দুপুর থেকেই সরগরম ছিল উত্তর-পূর্বের রাজনীতি। সন্ধ্যার পর অসমের মুখ্যমন্ত্রী জানান, পুলিশকর্মীদের মৃত্যুর কথা। অভিযোগ উঠেছে, লায়লাপুর সীমানা কাছে মিজোরামের দিক থেকে সীমানা পেরিয়ে অসমের দিকে আসছিলেন অসমেরই সরকারি আধিকারিকরা। তাঁদের দিকে হঠাৎই ইট, পাথর ছুড়তে শুরু করে স্থানীয় জনতা। সঙ্গে সঙ্গে সীমানায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করে অসম সরকার।

টুইট করেন দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও। দু’জনেই বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এক দিকে মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা লেখেন, 'অমিত শাহজি, দয়া করে বিষয়টি দেখবেন। এসব এখনই বন্ধ করা দরকার।' অন্যদিকে সরকার এ ভাবে সরকার চালাবেন কী করে? এই প্রশ্ন তুলে অমিত শাহ-কে ট্যাগ করে একটি টুইট করে হিমন্ত বিশ্বশর্মাও। পাশাপাশি তাঁরা দু’জনেই ঘটনার একটি ভিডিও শেয়ার করেন। সেখানে অশান্তির আঁচ স্পষ্ট। তবে এই প্রথম নয়, গত জুন মাসেও সীমানা নিয়ে বিবাদে জড়িয়েছিল দুই রাজ্য। সে বারেও তৈরি হয়েছিল উত্তপ্ত পরিস্থিতি।

ঘটনার পর রাহুল গান্ধি অশান্তির ভিডিও টুইট করে মৃত পুলিশকর্মীদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। এমনকী, জখমদের দ্রুত আরোগ্যও কামনা করেন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in