দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু ও হায়দরাবাদ বিমানবন্দরের বাকি শেয়ার বেচতে চলেছে কেন্দ্র

২০২১-২২ অর্থবর্ষে এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়ার ৪ টি বিমানবন্দরের বাকি শেয়ার ছাড়াও আরও ১৩টি বিমানবন্দরকে বেসরকারিকরণ করা হবে বলে ঠিক করা হয়েছে। সিভিল এভিয়েশন মন্ত্রকের তরফে এই বিষয়ে অনুমোদনের প্রয়োজন।
দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু ও হায়দরাবাদ বিমানবন্দরের বাকি শেয়ার বেচতে চলেছে কেন্দ্র
মুম্বাই বিমানবন্দরফাইল ছবি সংগৃহীত

দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু ও হায়দরাবাদ বিমানবন্দরের বাকি অংশের শেয়ার বিক্রি করতে চলেছে কেন্দ্র। কেন্দ্র সম্প্রতি যে অতিরিক্ত ২.৫ লাখ কোটি টাকা তোলার পরিকল্পনা করেছে এই চার সংস্থার সরকারি অংশ বিক্রি তারই অংশ বলে তথ্যভিজ্ঞ মহলের মত।

২০২১-২২ অর্থবর্ষে এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়ার ৪ টি বিমানবন্দরের বাকি শেয়ার ছাড়াও আরও ১৩টি বিমানবন্দরকে বেসরকারিকরণ করা হবে বলে ঠিক করা হয়েছে। সিভিল এভিয়েশন মন্ত্রকের তরফে এই বিষয়ে অনুমোদনের প্রয়োজন বলে জানানো হয়েছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে মন্ত্রিসভায় এই শেয়ার বেসরকারিকরণ পত্রে অনুমোদন পাওয়ার জন্য পাঠানো হবে। সূত্রের খবর, এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়া এই ১৩টি বিমানবন্দরের মধ্যে লাভজনক ও অলাভজনক বিমানবন্দরকে এক করে আকর্ষণীয় প্যাকেজ করা হবে।

এর আগে গত বছরেই প্রথম ধাপে নরেন্দ্র মোদি সরকার আদানি গ্রুপকে ৬টি বিমানবন্দরের শেয়ার বিক্রি করে। যার মধ্যে রয়েছে লখনউ, আমদাবাদ, জয়পুর, মেঙ্গালুরু, তিরুবনন্তপুরম এবং গুয়াহাটি। মুম্বই বিমানবন্দরে ৭৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে আদানি গোষ্ঠীর হাতে। বাকি শেয়ার রয়েছে এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়ার হাতে। অন্যান্য বিমানবন্দরগুলোরও কিছু না কিছু শেয়ার বেসরকারি সংস্থার হাতে রয়েছে। এবার সেগুলোর পুরোপুরি বেসরকারিকরণের পথে হাঁটতে চলেছে কেন্দ্র।

২০২১-২২ এর বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ জানিয়েছিলেন, এইসব ক্ষেত্রের পরিকাঠামো উন্নয়নের জন্য অর্থের প্রয়োজন। তাই এই বেসরকারিকরণের সিদ্ধান্ত। গত মাসেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছিলেন, ২.৫ লক্ষ কোটি টাকার অর্থ লগ্নি হতে চলেছে এমন ১০০টি সরকারি সম্পত্তি বেচতে চলেছে কেন্দ্র।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in