Delhi: আবার বুলডোজার অভিযান, মোতায়েন বিপুল সংখ্যক আধাসেনা ও পুলিশ

মঙ্গলপুরী এলাকায় এ নিয়ে দ্বিতীয়বার বুলডোজার চালাল দিল্লি পুরনিগম। এর আগে গত ১০ মে, রাস্তার ধারে নির্মিত বেশ কয়েকটি বুথ এবং কিয়স্ক ভেঙে ফেলা হয়েছিল বুলডোজার দিয়ে।
Delhi: আবার বুলডোজার অভিযান, মোতায়েন বিপুল সংখ্যক আধাসেনা ও পুলিশ
দিল্লিতে আবার বুলডোজার অভিযানফাইল ছবি

দিল্লিতে আবার বুলডোজার রাজ শুরু করেছে বিজেপি পরিচালিত দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগম। মঙ্গলবার, রাজধানীর মঙ্গলপুরী এলাকায় 'অবৈধ উচ্ছেদ' ভাঙতে বুলডোজার চালানো হয়েছে।

মঙ্গলপুরীর রাস্তার পাশে থাকা বসতি, দোকান বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিতে দেখা গেছে। এদিন ওয়াই (Y)-ব্লক থেকে এইচ (H)-ব্লক পর্যন্ত প্রায় ৪০০ মিটার রাস্তা পরিষ্কার করেছে সিভিক বডি।

উচ্ছেদ অভিযান চলাকালীন ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন দিল্লি পুরনিগম কর্তাব্যক্তিরা। সাধারণ মানুষ যাতে বিক্ষোভ দেখাতে না পারে, তার জন্য সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে বিপুল সংখ্যক আধা সেনা ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, আগে থেকেই উচ্ছেদ অভিযান চালানোর কথা জনগণকে জানিয়েছিল দিল্লি পুরনিগম। তাই অনেক মানুষই নিজেদের অবৈধ দখলকৃত বস্তু সরিয়ে নিয়েছে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলপুরী এলাকায় এ নিয়ে দ্বিতীয়বার বুলডোজার চালাল দিল্লি পুরনিগম। এর আগে গত ১০ মে, রাস্তার ধারে নির্মিত বেশ কয়েকটি বুথ এবং কিয়স্ক ভেঙে ফেলা হয়েছিল বুলডোজার দিয়ে।

এরপর, ১১ মে দিল্লির তিলক নগর, দ্বারকা, লোধি রোড, নাজফগড়, আয়া নগর সহ একাধিক জায়গায় উচ্ছেদ অভিযান চালায় দক্ষিণ দিল্লি পুরনিগম। এই ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ এনে প্রতিবাদ জানিয়েছিল বামেরা।

সেইসময় সিপিআই (এম) পলিটব্যুরোর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়েছে - 'অবৈধ স্থাপনা ও দখলদারি ধ্বংস করার জন্য আইন ও পদ্ধতি রয়েছে। বিচারবিভাগীয় হস্তক্ষেপে আপাতত জাহাঙ্গীরপুরীতে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ করে দিলেও বিভিন্ন জায়গায় এ ধরনের কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে। যে কোনো অবৈধ স্থাপনা অপসারণ অবশ্যই আইন অনুযায়ী হতে হবে এবং নির্ধারিত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। দরিদ্রদের জন্য বিকল্প জীবিকা এবং আশ্রয় নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত সমস্ত ধ্বংসযজ্ঞ বন্ধ করা উচিত।"

দিল্লিতে আবার বুলডোজার অভিযান
বাকি বিরোধীরা কোথায়? - বুলডোজারের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা বৃন্দা কারাটের ছবি পোস্ট করে প্রশ্ন নেটিজেনদের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in