ফের রাজ্যসভার প্রার্থী মিডিয়া ব্যারন সুভাষ চন্দ্র, নাটকীয় মোড় রাজস্থানে

রাজস্থানের চারটি আসনের মধ্যে কংগ্রেস দুটি এবং বিজেপি একটিতে জয়ী হওয়ার অবস্থানে রয়েছে। ফলে চতুর্থ আসনে জন্য সুভাষ চন্দ্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।
ফের রাজ্যসভার প্রার্থী মিডিয়া ব্যারন  সুভাষ চন্দ্র, নাটকীয় মোড় রাজস্থানে
বসুন্ধরা রাজের সাথে সুভাষ চন্দ্র ছবি সংগৃহীত

ফের রাজ্যসভার প্রার্থী হলেন মিডিয়া ব্যারন তথা এসেল গ্রুপের চেয়ারপার্সন সুভাষ চন্দ্র। মঙ্গলবার, বিজেপি বিধায়কদের সমর্থন নিয়ে মনোনয়ন পেশ করেছেন তিনি। আর এই ঘটনায় জেরে জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

জানা যাচ্ছে, রাজস্থানের চারটি রাজ্যসভা আসনের মধ্যে ইতিমধ্যে তিনজন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে রাজ্যে ক্ষমতাসীন কংগ্রেস। রণদীপ সুরজেওয়ালা, মুকুল ওয়াসনিক এবং প্রমোদ তিওয়ারি এই তালিকায় আছেন। অন্যদিকে, বিজেপিও নিজেদের প্রার্থী হিসাবে ঘনশ্যাম তিওয়ারির নাম ঘোষণা করেছে। এবার সেই তালিকায় নয়া নাম সুভাষ চন্দ্র।

রাজস্থানের চারটি আসনের মধ্যে কংগ্রেস দুটি এবং বিজেপি একটিতে জয়ী হওয়ার অবস্থানে রয়েছে। ফলে চতুর্থ আসনে জন্য সুভাষ চন্দ্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এক্ষেত্রে কংগ্রেসের প্রমোদ তিওয়ারির সঙ্গে তাঁর হাড্ডাহাড়ি লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে, উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা প্রমোদ তিওয়ারিকে রাজস্থান থেকে রাজ্যসভার প্রার্থী করায় কংগ্রেসের অন্দরেই বিরোধ তৈরি হয়েছে। অনেকেই প্রমোদ তিওয়ারিকে ‘বহিরাগত’ আখ্যা দিয়েছেন। তাছাড়া, ক্ষমতাসীন কংগ্রেস সরকারে অশোক গেহলট বনাম শচীন পাইলট যে দ্বন্দ্ব চলছে, তা যে কোনও সময় সীমা ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে আশংকা সংশ্লিষ্ট মহলের।

তবে, মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট জানিয়েছেন, ‘আমাদের তিনজন প্রার্থীই জয়ী হবে। বিজেপি সুভাষ চন্দ্রকে মাঠে নামিয়েছে। তারা (বিজেপি) জানে, তাদের পর্যাপ্ত ভোট নেই, তাই তারা কী করবে। তারা ঘোড়া কেনাবেচা করবে এবং রাজ্যের পরিবেশকে খারাপ করবে।‘

২০০ সদস্যের রাজস্থান বিধানসভায়, প্রতিটি রাজ্যসভার প্রার্থীর জয়ের জন্য ৪১ টি ভোট প্রয়োজন। এ সময় রাজ্যে কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা ১০৮ এবং বিজেপির ৭১। এক্ষেত্রে বিজেপির সমর্থন ভোট পাওয়ার পর জিততে গেলে সুভাষ চন্দ্রের আরও ১১ টি ভোট দরকার। আর তৃতীয় আসন পেতে হলে কংগ্রেসের আরও ১৫টি ভোট প্রয়োজন।

ফলে, চতুর্থ আসনে কে জিতবেন, তা নির্ধারণ করার ক্ষমতা চলে গেছে রাজ্যের ছোট দলগুলির হাতে। রাজস্থানে ১৩ জন নির্দল বিধায়ক আছেন, রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টি (RLP)-র ২ জন বিধায়ক, ভারতীয় ট্রাইবাল পার্টি (BTP)-র ২ জন বিধায়ক এবং সিপিআইএম-এর ২ জন বিধায়ক আছেন। আগামী ১০ জুন, রাজ্যসভার নির্বাচনে এরাই হতে চলেছেন নির্ধারক ফ্যাক্টর।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in