Uttarpradesh: জেলা পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনে ব্যাপক রিগিং করে জয় ছিনিয়েছে বিজেপি, দাবি বিরোধীদের

এপ্রিল মাসে হওয়া পঞ্চায়েত সদস্য নির্বাচনে বিজেপির ব‍্যাপক ভরাডুবি হয়েছিল। নির্দল প্রার্থীরা বেশিরভাগ আসনে জয়লাভ করেছিলেন। দ্বিতীয় স্থানে ছিল সমাজবাদী পার্টি। বিজেপি ছিল তৃতীয় স্থানে।
Uttarpradesh: জেলা পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনে ব্যাপক রিগিং করে জয় ছিনিয়েছে বিজেপি, দাবি বিরোধীদের
প্রতীকী ছবি

উত্তরপ্রদেশের ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনের জেলা পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনে বিরাট জয় পেয়েছে বিজেপি। কিন্তু এই জয়ের পিছনে ব্যাপক জালিয়াতি হয়েছে বলে অভিযোগ বিরোধীদের। মোট ৭৫ টি আসনের মধ্যে বিজেপি ও তার জোটসঙ্গী আপনা দল একত্রে পেয়েছে ৬৫টি আসন। সমাজবাদী পার্টি পেয়েছে ৫টি আসন। লোক দল ও জনসত্তা দল পেয়েছে একটি করে আসন।কংগ্রেস কোনো আসন পায়নি। মায়াবতীর বিএসপি অবশ্য জেলা পঞ্চায়েত নির্বাচনে নিজেদের প্রার্থী দেওয়া থেকে বিরত থেকেছে।

জেলা পঞ্চায়েতের মোট ৭৫টি আসনের মধ্যে ২২টিতেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় জয়ী হয়েছে প্রার্থী। এর মধ্যে ২১টিতেই জিতেছে বিজেপি এবং একটিতে জিতেছে সমাজবাদী পার্টি।

এপ্রিল মাসে ৪ দফায় হওয়া পঞ্চায়েত সদস্য নির্বাচনে বিজেপির ব‍্যাপক ভরাডুবি হয়েছিল। নির্দল প্রার্থীরা বেশিরভাগ আসনে জয়লাভ করেছিলেন। জোটসঙ্গী রাষ্ট্রীয় লোকদলকে সাথে নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিল সমাজবাদী পার্টি। বিজেপি ছিল তৃতীয় স্থানে। এমনকি অযোধ্যা, মথুরা এবং বারাণসীতেও পর্যদুস্ত হয়েছিল বিজেপি।

কিন্তু দু মাস পরে হওয়া জেলা পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনে বিজেপি দুর্দান্ত ফল করেছে। এই নির্বাচন পরোক্ষভাবে হয়েছে, অর্থাৎ জনগণ সরাসরি সদস্যদের ভোট দেয়নি।

বিরোধী নেতাদের দাবি, দুর্নীতি, হুমকি, টাকা, খাটিয়ে জোরপূর্বক জয় ছিনিয়ে নিয়েছে বিজেপি। ৩ জুলাই, জেলা পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনের দিন সমাজবাদী অফিসিয়াল টুইটার হ‍্যান্ডেল থেকে অউরাইয়ার জেলাশাসক সুনীল কুমার বর্মার একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়, যেখানে তাঁকে চেয়ারপার্সন নির্বাচনের ঠিক আগে কোনো একটি ক‍্যামেরা বন্ধ করার নির্দেশ দিতে শোনা গেছে, যার ফলে একজন এসপি প্রার্থীকে বলপূর্বক হার স্বীকার করিয়ে নেওয়া হয়।

জেলাশাসকের বিরুদ্ধে কড়া ব‍্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুলে দলের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়, "অত‍্যন্ত লজ্জাজনক ঘটনা। আউরাইয়ার জেলাশাসক ক‍্যামেরার সামনে বসে নির্বাচনে কারচুপি করছেন। তিনি নিজে বলছেন ক‍্যামেরার সুইচ অফ করে এসপি প্রার্থীকে জোর করে পরাজিত করবেন তিনি। এই বিষয়টির দিকে নজর দেওয়া উচিত নির্বাচন কমিশনের। গণতন্ত্রের হত‍্যা বন্ধ করা উচিত। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া উচিত।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in