'বড়ভাই' ফোনে আড়ি পাতছে, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ মার্গারেট আলভার

টুইটারে তিনি লিখেছেন, ''নতুন’ ভারতে সমস্ত দলের রাজনীতিবিদদের সব কথোপকথন 'বিগ ব্রাদার' সবসময় দেখছেন এবং শুনছেন। এই ভয় থেকে সব দলের সাংসদ এবং নেতারা একাধিক ফোন ব্যবহার করেন। ঘন ঘন নম্বর পরিবর্তন করেন।'
কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ মার্গারেট আলভার
কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ মার্গারেট আলভারফাইল ছবি

বিজেপি-নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রে সরকারের বিরুদ্ধে 'ফোনে আড়ি পাতার' বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছেন বিরোধীদের উপরাষ্ট্রপতি প্রার্থী মার্গারেট আলভা। মঙ্গলবার তিনি বলেন, 'বড় ভাই' রাজনীতিবিদদের ফোন ট্যাপ করছে। এই ভয় দেখানো গণতন্ত্রে হত্যার সামিল।

টুইটারে তিনি লিখেছেন, ''নতুন’ ভারতে সমস্ত দলের রাজনীতিবিদদের সব কথোপকথন 'বিগ ব্রাদার' সবসময় দেখছেন এবং শুনছেন। এই ভয় থেকে সব দলের সাংসদ এবং নেতারা একাধিক ফোন ব্যবহার করেন। ঘন ঘন নম্বর পরিবর্তন করেন। এবং যখন তাঁরা মিলিত হন তখন চুপিচুপি ফিসফিস করে কথা বলেন। এই ভয় গণতন্ত্রকে হত্যা করছে।'

এর আগে গত সোমবার রাতে, অন্য এক টুইটে সরকারি টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল এবং এমটিএনএল-কে তীব্র কটাক্ষ করেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। দুই সংস্থাকে উদ্দেশ্য করে তিনি লেখেন, 'যদি আপনারা আমার ফোন সারিয়ে দেন, তাহলে আমি কথা দিচ্ছি আজ রাতে কোনও বিজেপি, টিএমসি বা বিজেডি সাংসদের ফোন করব না।'

ওই টুইটে তিনি এমটিএনএল সংস্থার তরফে পাঠানো একটি নোটিসও পোস্ট করেছেন। সেই নোটিসে দেখা যাচ্ছে, মার্গারেট আলভাকে অবিলম্বে 'কেওয়াইসি’ (নো ইয়োর কাস্টমার), অর্থাৎ তাঁর পরিচয় জ্ঞাপক তথ্য জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। না হলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর সিমকার্ড ব্লক করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। আলভার প্রশ্ন, 'আপনাদের এখন আমার কেওয়াইসি-র দরকার হল?'

অন্যদিকে, আলভার এই অভিযোগের জবাবে সংসদীয় মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী বলেন, 'কেন তাঁর ফোনে আড়ি পাতা হবে? আমরা উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ফলাফলে আত্মবিশ্বাসী। তিনি যাকে ইচ্ছে ফোন করতে পারেন। তিনি একজন বর্ষীয়ান রাজনীতিক। তাঁর এমন ধরনের অভিযোগ আনা উচিত হয়নি।'

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in