Bharat Bandh: তিন কৃষি আইন বাতিল করুন: কেন্দ্রের কাছে আর্জি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর
পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিত সিং চান্নিছবি চরণজিত সিং চান্নির ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

Bharat Bandh: তিন কৃষি আইন বাতিল করুন: কেন্দ্রের কাছে আর্জি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর

বিক্ষুব্ধ কৃষকদের প্রতি তাঁর কংগ্রেস সরকারের দায়বদ্ধতার কথা আরো একবার জানিয়ে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নী সোমবার কেন্দ্রের কাছে তিনটি কৃষি বিল বাতিলের আর্জি জানালেন।

বিক্ষুব্ধ কৃষকদের প্রতি তাঁর কংগ্রেস সরকারের দায়বদ্ধতার কথা আরো একবার জানিয়ে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নী সোমবার কেন্দ্রের কাছে তিনটি কৃষি বিল বাতিলের আর্জি জানালেন। সেই সঙ্গে কৃষকদের শান্তিপূর্ণ উপায়ে প্রতিবাদ জানাতে আবেদন করলেন।

মুখ্যমন্ত্রী একটি টুইটে এই আবেদন করেছেন। তিনি বলেছেন কৃষকরা এক বছরের বেশি সময় ধরে তাঁদের অধিকারের জন্য লড়াই করছেন।এবার তাদের কথা শোনা হোক। একই সঙ্গে শান্তিপূর্ণভাবে দাবি জানাতে কৃষকদের কাছে আবেদন রেখেছেন।

পঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি নভজোত সিং সিধু বলেছেন, পঞ্জাব প্রদেশ কংগ্রেস ঠিক না বেঠিকের লড়াইতে কৃষকদের পাশেই আছে। এক্ষেত্রে নিরপেক্ষ থাকা যায় না। তিনি সকল কংগ্রেস কর্মীকে সর্বশক্তি দিয়ে এই তিনটি কালা কৃষি আইনের বিরুদ্ধে লড়াই চালানোর আর্জি জানিয়েছেন।

কেন্দ্রের তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে কৃষক ইউনিয়নগুলির ডাকা ভারত বনধকে সফল করতে হরিয়ানা, পঞ্জাবে হাইওয়ে অবরোধ করেছে শয়ে শয়ে কৃষক।দিল্লীর সঙ্গে সংযোগকারী ১নং জাতীয় সড়কও অবরুদ্ধ।

বিকেল চারটে পর্যন্ত কৃষক, কৃষি মজুর, কমিশন এজেন্ট, ব্যবসা ও কর্মচারী সংগঠন এবং রাজনৈতিক দলের কর্মীদের এই অবরোধ চললে পঞ্জাব হরিয়ানায় গাড়ি চলাচলে তার বড়সড় প্রভাব পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দুটি রাজ্যেই হাইওয়ে এবং প্রধান সংযোগকারী রাস্তাগুলিতে ট্রাক্টর নিয়ে বসে পড়েছে বিক্ষোভকারী কৃষকরা। এই বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে হরিয়ানা পঞ্জাবের বিভিন্ন জায়গায় প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। হাইওয়ে বন্ধ থাকায় গাড়িঘোড়া ঘুরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তবে এখনও পর্যন্ত কোথাও থেকে কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। জরুরি চিকিৎসা পরিষেবাকে অবরোধের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। পুলিশ ভারত বনধের পরিপ্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষকে রাস্তায় যানবাহন চলাচল ব্যাহত হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে।

পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন হরিয়ানায় বিস্তারিত বন্দোবস্ত করা হয়েছে।মূল লক্ষ্য আইন শৃঙখলা রক্ষা,হিংসাত্মক ঘটনা প্রতিরোধ এবং গাড়ি চলাচল জন পরিবহণ স্বাভাবিক রাখা।

তিনি কৃষকদের প্রতি শান্তিপূর্ণ উপায়ে তাদের দাবি জানানোর আবেদন করেছেন।তবে কেউ বনধের নামে বিশৃঙখলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে রেয়াত করা হবে না বলে সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি।

৪০টি কৃষক ইউনিয়নের জোট সংযুক্ত কিষান মোর্চা এই প্রতিবাদ ও বনধের ডাক দিয়েছে।

বিক্ষুব্ধ কৃষকদের দাবি গত বছর সংসদে পাশ হওয়া তিনটি কৃষি আইন বাতিল করতে হবে।তাদের আশঙ্কা ভবিষ্যতে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য মিলবে না।বড় কোম্পানিগুলির দয়ার ওপর নির্ভর কর‍্যে হবে।

সরকারের বক্তব্য নতুন আইনে কৃষকদের আরও সুবিধা হবে।বিরোধী দলগুলি কৃষকদের বিপথে চালিত করছে বলে সরকারের অভিযোগ।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in