'অযোধ্যায় জমি কেলেঙ্কারি' - তদন্ত চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে চিঠি খোদ BJP নেতার

এ নিয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বিষয়টি উত্তরপ্রদেশ সরকারের কাছে হস্তান্তর করেছে PMO। মনে করা হচ্ছে, অযোধ্যার প্রায় ২০০০ বিঘা জমি ভূমি কেড়ে নিয়েছে মাফিয়ারা।
রজনীশ সিং
রজনীশ সিংগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

আবার সংবাদ শিরোনামে উত্তরপ্রদেশের মন্দির নগরী অযোধ্যা। তবে, তা রাম মন্দির নিয়ে নয়, জমি 'কেলেঙ্কারি'র জন্য! বৃহস্পতিবার, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দফতরে (PMO) অযোধ্যার বড়সড় জমি কেলেঙ্কারি নিয়ে অভিযোগ করেছেন বিজেপির এক নেতা।

অযোধ্যা বিজেপির মুখপাত্র রজনীশ সিং (Rajneesh Singh) অভিযোগ করেছেন, অযোধ্যায় নাজুল জমি কেলেঙ্কারিতে স্থানীয় সরকারী কর্মকর্তারা জড়িত। তাই, অযোধ্যায় নাজুল জমির পুরানো নথি এবং প্লটগুলির বর্তমান পরিস্থিতির সাথে মিল করে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের দাবি করেছেন রজনীশ সিং।

কয়েকদিন আগে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কাছে একই অভিযোগ করেছিলেন বিজেপি সাংসদ লাল্লু সিং (BJP MP Lallu Singh)। একইসঙ্গে তিনি এই জমি কেলেঙ্কারির তদন্তের জন্য SIT (সিট) গঠনের দাবি তুলেছিলেন।

রাম-মন্দির নির্মাণকে কেন্দ্র করে অযোধ্যা লাইমলাইটে থাকলেও, বর্তমানে তা নানা অভিযোগে বিদ্ধ হচ্ছে। গত কয়েক মাসেই নাজুল জমি কেলেঙ্কারির অভিযোগ সামনে আসে। অভিযোগ ওঠে, স্থানীয় পর্যায়ে সরকারি আধিকারিকরা এই কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত।

এ নিয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বিষয়টি উত্তরপ্রদেশ সরকারের কাছে হস্তান্তর করেছে PMO। মনে করা হচ্ছে, অযোধ্যার প্রায় ২০০০ বিঘা জমি ভূমি কেড়ে নিয়েছে মাফিয়ারা।

মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগে লালু সিং বলেন, জমি মাফিয়ারা সরকারী আধিকারিকদের সাথে একটি জোট গঠন করেছে। জানা যাচ্ছে, এই ২০০০ বিঘা জমিটি ফৈজাবাদ শহরের বিখ্যাত 'আফিম কোঠি'তে অবস্থিত। এটি জলমগ্ন এলাকা হিসাবে পরিচিত।

রজনীশ সিং
Madhya Pradesh: 'তানজিম-এ-জারখেজ', গরীব কৃষকদের 'জমি হাতাতে' হিন্দু সংগঠনের নাম বদল মধ্যপ্রদেশে

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in