Assam Eviction: যোগীর পথেই হিমন্ত, 'দখলদারদের' হঠাতে আসামে চলছে উচ্ছেদ অভিযান!

যদিও বিরোধীদের অভিযোগ, অবৈধ উচ্ছেদের নামে সংখ্যালঘু প্রধান এলাকাগুলিকে বেছে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা সরকার।
Assam Eviction: যোগীর পথেই হিমন্ত, 'দখলদারদের' হঠাতে আসামে চলছে উচ্ছেদ অভিযান!
ছবি সংগৃহীত

দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাটের পথে আসাম। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বরের পর, বিজেপি শাসিত আসামে আবার শুরু হয়েছে উচ্ছেদ অভিযান। অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করছে বিজেপি সরকার। যদিও বিরোধীদের অভিযোগ, অবৈধ উচ্ছেদের নামে সংখ্যালঘু প্রধান এলাকাগুলিকে বেছে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা সরকার।

সরকারী সূত্রের খবর, সোমবার, ভোরবেলা থেকে নগাঁও জেলার বটদ্রবা এলাকায় কয়েক হাজার 'দখলদারদের' বাড়ি ভেঙে দেওয়ার কাজ শুরু করেছে প্রশাসন। আর, এই উচ্ছেদকে ঘিরে যাতে উত্তেজনা না ছড়ায়, সেজন্য বটদ্রবা এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী ও আধাসেনা মোতায়েন করা হয়েছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে, নিকটবর্তী মরিগাঁও জেলা প্রশাসনকে উচ্ছেদ অভিযানে সহযোগিতা করার এবং সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, গত অক্টোবর মাসে প্রায় ১,০০০ 'দখলদার পরিবার'কে জমি খালি করার জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। এরপর, ৮০ শতাংশেরও বেশি মানুষ তাদের বাড়িঘর, দোকানপাট ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে। কিন্তু, ২০ শতাংশ মানুষ এখনও 'অবৈধ ভাবে' জায়গাগুলি দখল করে আছে। তাঁদেরকে হটাতেই চারটি গ্রামে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে।

পুলিশ সুপার ডলি (SP Doley) জানান, 'সাঁটিজান বাজারের পরে আমরা হাইডুবি এলাকায় জমি পরিষ্কার করব। তারপরে, বাকি দুটি গ্রামে অভিযান চালানোর বিষয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।'

গত ১২ সেপ্টেম্বর, আসাম বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছিলেন, গত বছরের মে মাসে থেকে রাজ্য জুড়ে ৪,৪৪৯ 'দখলদারদের' পরিবারকে উচ্ছেদ করা হয়েছে।

তাৎপর্যপূর্ণভাবে, আসামের নগাঁও জেলার 'বটদ্রবা' এলাকা হল বৈষ্ণব ধর্মের অন্যতম পীঠস্থান। সেখানকার সত্র বা নামঘরগুলি (দেবালয়) হাজার হাজার পর্যটকদের আকর্ষণ করে। আর এই বটদ্রবার অস্থিত্ব বিপন্ন করে তুলেছে 'বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী', এই অভিযোগ একাধিকবার করেছেন আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা।

তবে, বিরোধীদের অভিযোগ, বেছে বেছে সংখ্যালঘুদের নিশানা করছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুসলিম প্রধান নগাঁও জেলায় স্বাভাবিকভাবেই তাঁর নিশানায় রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে উচ্ছেদ অভিযানকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে আসাম। দাররাং জেলার ধলপুর এলাকায় সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে প্রাণ হারান ২ জন। আহত হন ২০ জনেরও বেশি মানুষ।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in