যুবকদের ভবিষ্যত সুরক্ষিত করুন আগে - BJP নেতাদের নিরাপত্তা বাড়ানোয় কেন্দ্রকে কটাক্ষ জোটসঙ্গী JDU-র
BJP নেতাদের নিরাপত্তা বাড়ানোয় কেন্দ্রকে কটাক্ষ জোটসঙ্গী JDU-রগ্রাফিক্স নিজস্ব

যুবকদের ভবিষ্যত সুরক্ষিত করুন আগে - BJP নেতাদের নিরাপত্তা বাড়ানোয় কেন্দ্রকে কটাক্ষ জোটসঙ্গী JDU-র

JD(U) প্রধান মুখপাত্র নীরজ কুমার বলেছেন, "তরুণদের মনে সন্দেহ তৈরি হয়েছে যে এই অগ্নিপথ প্রকল্প তাদের ভবিষ্যত শেষ করে দেবে। কেন্দ্রের উচিত তাদের এই উদ্বেগগুলি নিয়ে চিন্তাভাবনা করা এবং তার সমাধান করা।"

কেন্দ্রের অগ্নিপথ প্রকল্প ঘিরে গত বুধবার থেকে অগ্নিগর্ভ রয়েছে বিহার। বিক্ষোভকারীদের রোষের মুখে পড়েছেন একাধিক বিজেপি নেতা। আগুন ধরানো হয়েছে একাধিক বিজেপি কার্যালয়ে। এই পরিস্থিতিতে ১২ জন বিজেপি নেতাকে 'ওয়াই' ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দিচ্ছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এই সিদ্ধান্তকে কটাক্ষ করেছে বিহারে বিজেপির জোটসঙ্গী জনতা দল-ইউনাইটেড বা JD(U)।

JD(U)-র কথায়, বিজেপি নেতাদের নিরাপত্তার চেয়ে ছাত্রদের নিরাপদ ভবিষ্যৎ বেশি প্রয়োজন। JD(U) MLC এবং প্রধান মুখপাত্র নীরজ কুমার বলেছেন, "তরুণদের মনে সন্দেহ তৈরি হয়েছে যে এই অগ্নিপথ এবং অগ্নিবীরের মতো প্রকল্পের মাধ্যমে তাদের ভবিষ্যত হয়তো শেষ হয়ে যাবে। শিক্ষার্থীরা যদি মনে করে যে অগ্নিপথ প্রকল্প তাদের ভবিষ্যত অন্ধকার করে দেবে, কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত তাদের এই উদ্বেগগুলি নিয়ে চিন্তাভাবনা করা এবং তার সমাধান করা। এই প্রকল্পের সুবিধাগুলি তাদের বোঝাতে হবে।"

তিনি আরও বলেন, "প্রতিরক্ষা দপ্তরে চাকরি করতে ইচ্ছুক এমন প্রত্যেকের মনে এই মুহূর্তে অগ্নিপথ প্রকল্প নিয়ে বিশাল সন্দেহ রয়েছে। দেশের যুবকদের সমস্যার সমাধান করা প্রত্যেকের দায়িত্ব, কারণ তারাই দেশের ভবিষ্যত।"

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক যে বিজেপি নেতাদের 'ওয়াই' ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে তাঁরা হলেন - বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা পশ্চিম চম্পারণের সাংসদ সঞ্জয় জয়সওয়াল; রাজ্যের দুই উপ-মুখ্যমন্ত্রী রেণু দেবী এবং তার কিশোর প্রসাদ; সঞ্জীব চৌরাসিয়া; হরি ভূষণ ঠাকুর বাচৌল; আরারিয়া সাংসদ প্রদীপ সিং; দারভাঙ্গার সাংসদ গোপাল জি ঠাকুর; এমএলসি অশোক আগরওয়াল; এমএলসি দিলীপ জয়সওয়াল; সঞ্জয় সারাওগি এবং বিজয় খেমকা।

এর আগে দিলীপ জয়সওয়াল রাজ্যে এই সহিংসতার জন্য বিহার পুলিশকে দায়ী করেছিল। তাঁর অভিযোগ, বিজেপি কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগের সময় এবং বিজেপি নেতাদের সম্পত্তি নষ্টের সময় পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছিল। এরপর এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, 'ওয়াই' ক্যাটাগরির নিরাপত্তার অধীনে এবার থেকে এই নেতাদের সাথে সিআরপিএফ জওয়ান থাকবে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in