Agnipath: মধ্যপ্রদেশে শিবরাজ সিং-য়ের ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন প্রাক্তন সেনা কর্মীদের

নিয়ম অনুযায়ী, প্রাক্তন সেনাদের জন্য প্রায় ৬০০ আসন সংরক্ষিত থাকার কথা ছিল। কিন্তু, মাত্র ৬ জন প্রাক্তন সেনা কর্মীকে নির্বাচন করা হয়েছে।
Agnipath: মধ্যপ্রদেশে শিবরাজ সিং-য়ের ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন প্রাক্তন সেনা কর্মীদের
শিবরাজ সিং চৌহানফাইল ছবি সংগৃহীত

‘অগ্নিপথ’ নিয়ে উত্তেজনা থামাতে আসরে নেমেছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। তিনি ঘোষণা করেছেন, ‘অগ্নিপথ প্রকল্পের অধীন স্বল্পমেয়াদী চুক্তির ভিত্তিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেবেন, পরবর্তীকালে সেই জওয়ানদের রাজ্য পুলিশ নিয়োগে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।’ কিন্তু শিবারাজ সিংয়ের এই ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রাক্তন সেনাকর্মীরা।

সম্প্রতি রাজ্য পুলিশে প্রাক্তন সেনাদের জন্য ১০ শতাংশ সংরক্ষণ বাতিল করেছে মধ্যপ্রদেশের সরকার। সেই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন প্রাক্তন সেনাকর্মীরা।

এই প্রসঙ্গে অবসরপ্রাপ্ত এক সেনাকর্মী জানিয়েছেন, ‘১৯৯৯ সাল থেকে আমরা ১০ শতাংশ সংরক্ষণের সুবিধা পাচ্ছিলাম। কিন্তু রাজ্য সরকার তা তুলে দিয়েছে। তাই রাজ্য সরকারকে অনুরোধ, আমাদের দাবি পুনঃবিবেচনা করুন।’

মধ্যপ্রদেশ হাইকোর্টেরও দ্বারস্থ হয়েছেন কিছু প্রাক্তন সেনা। প্রাক্তন সেনা কর্মীদের সংরক্ষণের সুবিধা না দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকার এবং মধ্যপ্রদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনকে (MPPSC) নোটিশ জারি করেছে আদালত।

এক পিটিশনে প্রাক্তন সেনা কর্মীরা দাবি করেছেন, ২০১৯ সালে মধ্যপ্রদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে নিয়োগের যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল, তা রক্ষা করেনি সরকার। নিয়ম অনুযায়ী, রাজ্য পুলিশে নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রাক্তন সেনাকর্মীরা শারীরিক পরীক্ষায় কিছু ছাড় পান। কিন্তু, তা মানাই হয়নি নিয়োগের ক্ষেত্রে।

সম্প্রতি, মধ্যপ্রদেশ পুলিশে কনস্টেবলের ৬,০০০ পদের জন্য ৩০,০০০-এরও বেশি প্রার্থী আবেদন করেছিলেন। নিয়ম অনুযায়ী, প্রাক্তন সেনাদের জন্য প্রায় ৬০০ আসন সংরক্ষিত থাকার কথা ছিল। কিন্তু, মাত্র ৬ জন প্রাক্তন সেনা কর্মীকে নির্বাচন করা হয়েছে।

প্রাক্তন সেনা কর্মীদের আইনজীবী নরিন্দর পাল সিং রূপরাহ বলেন, ‘আমরা আরটিআই (RTI) করে জানতে পেরেছি, সমগ্র মধ্যপ্রদেশ থেকে মাত্র ছয়জন প্রার্থীকে নির্বাচিত করা হয়েছে। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা।’

এই অভিযোগ নিয়ে সরকারের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা পুলিশ মন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র এই বিষয়ে কোনও মন্তব্যে করেননি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in