প্রায় ১৫০০ কোটির বিনিময়ে দেশের আরও এক বন্দর অধিগ্রহণ আদানি গ্রুপের

করাইকাল বন্দর অধিগ্রহণ করতেই ভারতের মোট ১৪টি বন্দরের দখল এখন গৌতম আদানির কাছে। সূত্রের খবর, দেউলিয়া আইনের মাধ্যমে বন্দরের দায়িত্ব নিয়েছে আদানি গ্রুপ।
গৌতম আদানি
গৌতম আদানিগ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

দেশের আরও একটি বন্দর অধিগ্রহণ করলো আদানি গ্রুপ। প্রায় দেড় হাজার কোটির বিনিময়ে হস্তান্তর হয়েছে পন্ডিচেরীর করাইকাল বন্দরটি। এবার থেকে করাইকাল বন্দরের দায়িত্ব সামলাবে আদানি পোর্টস অ্যান্ড স্পেশাল ইকনোমিক জোন লিমিটেড (APSEZ)।

করাইকাল বন্দর অধিগ্রহণ করতেই ভারতের মোট ১৪টি বন্দরের দখল এখন গৌতম আদানির কাছে। সূত্রের খবর, দেউলিয়া আইনের মাধ্যমে বন্দরের দায়িত্ব নিয়েছে আদানি গ্রুপ। ১৪৮৫ কোটি টাকার বিনিময়ে ওই বন্দরের মালিক এখন আদানি। বন্দরের ১০ লক্ষ শেয়ার আদানির সংস্থা কিনেছে। প্রতিটি শেয়ারের মূল্য ১০ টাকা।

করাইকাল বন্দর হস্তান্তরে সম্মতি দিয়েছে ন্যাশনাল কোম্পানি ল ট্রাইব্যুনাল। ছাড়পত্র পাওয়ার পরেই APSEZ-র সিইও জানান, আগামী ৫ বছরের মধ্যে এই বন্দরের ক্ষমতা দ্বিগুণ করা হবে। বন্দরের আধুনিকীকরণের জন্য অতিরিক্ত প্রায় ৯০০ কোটি টাকা খরচ করা হবে। যার ফলে পণ্য পরিবহণের খরচা কমে যাবে। চেন্নাই থেকে প্রায় ৩০০ কিমি দক্ষিণে এই বন্দরটি অবস্থিত। ২০০৯ সালে পন্ডিচেরী সরকার ও একটি বেসরকারি সংস্থার যৌথ প্রয়াসে করাইকাল বন্দরটি তৈরি হয়।

উল্লেখ্য, করাইকাল বন্দর ছাড়াও ভারতে ১৩টি বন্দরের মালিক আদানি গ্রুপ। সেগুলি হলো - গুজরাটের মুন্দ্রা বন্দর, টুনা টার্মিনাল, দাহেজ বন্দর, হাজিরা বন্দর। মহারাষ্ট্রের দিঘি বন্দর, গোয়ার মুর্মুগাও টার্মিনাল, কেরালার ভিঝহিনজাম বন্দর, তামিলনাড়ুর ইন্নোর টার্মিনাল, কাট্টুপাল্লি বন্দর, অন্ধ্রপ্রদেশের কৃষ্ণপট্টনাম বন্দর, গঙ্গাভরম বন্দর, ওড়িশার ধর্মা বন্দর এবং পশ্চিমবঙ্গের হলদিয়া বন্দর।

গৌতম আদানি
Write off Loans: মোদী জমানায় বেড়েছে অনাদায়ী ব্যাঙ্ক ঋণ! ৮ বছরে মকুব ১৪.৫ লক্ষ কোটি টাকা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in