'শ্রমিকরা ক্রীতদাস নয়' - সীতারাম ইয়েচুরি

'শ্রমিকরা ক্রীতদাস নয়' - সীতারাম ইয়েচুরি
সীতারাম ইয়েচুরি ফাইল ছবি সংগৃহীত

‘শ্রমিকরা ক্রীতদাস নয়।’ সোমবার এক ট্যুইট বার্তায় একথা জানিয়েছেন সিপিআই(এম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। প্রসঙ্গত, লকডাউন ওঠার পর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজে যোগ না দিলে সংশ্লিষ্ট কর্মীদের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং মাইনে কেটে নেওয়া হবে। একাধিক রাজ্য থেকে বিভিন্ন সংস্থার এই সিদ্ধান্তে সিলমোহর দেওয়া হতে পারে। এই প্রসঙ্গেই ইয়েচুরির এই মন্তব্য।

জানা গেছে, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ, কর্ণাটক, উত্তরপ্রদেশ প্রভৃতি রাজ্যের শ্রম দপ্তরের পক্ষ থেকে সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়েছে তারা তাঁদের রাজ্যের বিভিন্ন কারখানায় শ্রমিকদের কাজে ফিরিয়ে আনতে এই ধরণের নির্দেশ দিতে পারেন। ইতিমধ্যেই গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ এবং উত্তরপ্রদেশ বর্তমান শ্রম আইনকে লঘু করেছে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলোর বক্তব্য রাজ্যের অর্থনৈতিক কাজকর্ম ফিরিয়ে আনতে এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। যদিও এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে আগামী ১৭ মে লকডাউন উঠে যাবার পর। অন্যদিকে কেরালার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে কোনো অবস্থাতেই রাজ্যে শ্রম আইন লঘু করা হবেনা।

বিভিন্ন রাজ্যের বক্তব্য, অভিবাসী শ্রমিকদের দ্রুত কাজে ফিরিয়ে আনবার জন্য এই ধরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। কারণ বর্তমানে অভিবাসী শ্রমিকদের ছাড়া কোনো রাজ্যের কোনো সংস্থাই পূর্ণ উৎপাদন শুরু করতে পারবে না। সেক্ষেত্রে কড়া পদক্ষেপ না নিলে অভিবাসী শ্রমিকদের কাজে ফেরানো যাবে না।

গত ২৪ মার্চ মধ্যরাত থেকে ৪ ঘণ্টার নির্দেশে লকডাউন শুরু হবার পর দেশে সবকিছু বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে বহু সংস্থার কর্মীরা কাজ হারান, রোজগার হারান। এঁদের কিছু অংশ নিজেদের বাড়ি ফিরতে পেরেছেন আর একটা বড় অংশই এখনও বিভিন্ন রাজ্যে আটকে রয়েছেন।

যদি এই ধরণের কোনো নির্দেশিকা জারি হয় সেক্ষেত্রে যে কারখানায় ১০ জন বা তার বেশি শ্রমিক কাজ করেন এবং উৎপাদনের জন্য বিদ্যুৎ ব্যবহার করে সেখানেই এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in