Pakistan: বালুচিস্তানে ভূমিকম্পে নিহত কমপক্ষে ২০, জখম ৩০০র বেশি

পাকিস্তানের বালুচিস্তানে বৃহস্পতিবার সকালে ভূমিকম্পে অন্তত ২০জন নিহত হয়েছে। জখম ৩০০রও বেশি। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.৯। প্রাদেশিক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মির জিয়াউল্লা ল্যাংগোভ এই খবর দিয়েছেন।
Pakistan: বালুচিস্তানে ভূমিকম্পে নিহত কমপক্ষে ২০, জখম ৩০০র বেশি
বালুচিস্তানে ভূমিকম্প ছবি রোহন শাহ-র ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

পাকিস্তানের বালুচিস্তানে বৃহস্পতিবার সকালে ভূমিকম্পে অন্তত ২০জন নিহত হয়েছে। জখম ৩০০রও বেশি। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.৯। প্রাদেশিক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মির জিয়াউল্লা ল্যাংগোভ এই খবর দিয়েছেন।

জিনহুয়া নিউজ এজেন্সি জানিয়াছে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া মন্ত্রীর বয়ান অনুযায়ী উদ্ধারকাজ ও চিকিৎসার সুবিধার জন্য প্রদেশের সব জেলায় জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।,

ল্যাংগোভ জানিয়েছেন আহতদের প্রাদেশিক রাজধানী কোয়েটা সহ অন্য শহরে নিয়ে যেতে ঘটনাস্থলে হেলিকপ্টার পাঠানো হয়েছে।

পাকিস্তানের ন্যাশনাল সিসমিক মনিটরিং সেন্টারের তথ্য অনুযায়ী ভোর ৩.০১টায় ৫.৯মাত্রার ভূমিকম্পটি হয় মাটির ১৫কিমি গভীরে। কম্পনের কেন্দ্র ছিল হামাই জেলার কাছে। কম্পন অনুভূত হয় কোয়েটা, মাস্তাং, মুসলিমবাগ, কিলা সইফুল্লা, সিবি এবং পিশিনেও।

বালুচিস্তানের প্রভিন্সিয়াল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটির ডিরেক্টর জেনারেল নাসির নাসার বলেছেন, হামাই জেলা থেকে হতাহতের খবর পাওয়া গেছে।সেখানে ভূমিকম্পের পরে বাড়িঘর ভেঙে পড়ে।

উদ্ধারকারীদল দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করে। তবে জেলায় পাহাড়ি খাতের জন্য এবং বিদ্যুৎসংযোগ না থাকায় উদ্ধার কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, ভূমিকম্পের ফলে ধস নেমে একাধিক রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে। নাসর বলেছেন, উদ্ধারকাজের জন্য ভারী যন্ত্র পাঠানো হয়েছে তবে তা পৌঁছতে সময় লাগবে।

ডিরেক্টর জেনারেল বলেন, প্রাথমিক খবর অনুযায়ী সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হামাই জেলার তিনটি গ্রাম। সেখানে প্রায় ৭০টি বাড়ি ভেঙে পড়েছে।

হামাই শহরের ডেপুটি কমিশনার সোহেল আনোয়ার হাশমি বলেছেন,মৃত ও আহতদের নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তিনি আরও জানিয়েছেন হতাহতদের বেশিরভাগঈ মহিলা আর শিশু।

তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন,মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে। আহত ১৫জনের অবস্থা সংকটজনক। অনেক মানুষ ভাঙা বাড়ির তলায় চাপা পড়ে গেছেন।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.