Nepal: নেপালে সাধারণ নির্বাচন, চলছে ভোটগ্রহণ

সংবাদ সংস্থা জিংহুয়াকে নির্বাচন কমিশনের উপ মুখপাত্র সূর্য আরিয়াল জানিয়েছেন ভোটদাতারা প্রায় ১ কোটি ৮০ লক্ষ ভোটদাতা নিম্নকক্ষে ২৭৫ সদস্য এবং ৭টি প্রাদেশিক ক্ষেত্রে ৫৫০ জনকে নির্বাচিত করবেন।
নেপালে চলছে ভোটগ্রহণ
নেপালে চলছে ভোটগ্রহণ ছবি অজয় দাসের ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

নেপালের ৭টি প্রাদেশিক অ্যাসেম্বলির ২৭৫ আসনের প্রতিনিধি নির্বাচন করতে ভোটগ্রহণ চলছে দেশজুড়ে। রবিবার সকাল ৭ টা থেকে এই ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

সংবাদ সংস্থা জিংহুয়াকে নির্বাচন কমিশনের উপ মুখপাত্র সূর্য আরিয়াল জানিয়েছেন ভোটদাতারা প্রায় ১ কোটি ৮০ লক্ষ ভোটদাতা নিম্নকক্ষে ২৭৫ সদস্য এবং ৭টি প্রাদেশিক ক্ষেত্রে ৫৫০ জনকে নির্বাচিত করবেন।

তিনি আরও জানিয়েছেন, "সারা দেশে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শুরু চলছে।" তিনি আরও বলেন, আমরা আশা করছি সারাদিন ভোট সুষ্ঠুভাবে চলবে।

নেপালে মিশ্র নির্বাচনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। যেখানে নিম্নকক্ষ এবং প্রাদেশিক পরিষদের ৬০ শতাংশ প্রতিনিধি ফাস্ট-পাস্ট-দ্য-পোস্ট (FPTP) ভোটিং পদ্ধতির মাধ্যমে নির্বাচিত হয়। বাকি ৪০ শতাংশ আনুপাতিক প্রতিনিধিত্বের মাধ্যমে পূরণ করা হয়।

ফাস্ট-পাস্ট-দ্য-পোস্টের অধীনে নিম্নকক্ষের ১৬৫টি আসনের জন্য ২,৪১২ জন প্রার্থী এবং আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থার অধীনে ১১০টি আসনের জন্য ২,১৯৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

একইভাবে, ৩,২২৪ জন প্রার্থী ফাস্ট-পাস্ট-দ্য-পোস্টের অধীনে সাতটি প্রাদেশিক পরিষদের ৩৩০টি আসনের জন্য এবং আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থার অধীনে ২২০টি আসনের জন্য ৩,৭০৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ক্ষমতাসীন জোট থেকে নেপালি কংগ্রেস এবং নেপালের কমিউনিস্ট পার্টি (মাওয়িস্ট সেন্টার) নির্বাচনের জন্য একটি পাঁচ-দলীয় নির্বাচনী জোট গঠন করেছে। অন্যদিকে নেপালের কমিউনিস্ট পার্টি (ইউনিফাইড মার্কসবাদী লেনিনবাদী), বৃহত্তম বিরোধী দলও কিছু আসনের জন্য অন্যদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে।

সব মিলিয়ে এই নির্বাচনের জন্য ৭ হাজার ২১৯ জন পর্যবেক্ষক নিযুক্ত করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রসচিব বিনোদ সিং বলেছেন যে অবাধ, সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচন নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে এবং ভোটারদের কোনো ভয় ও ভীতি ছাড়াই তাদের ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মতে, নেপাল সেনাবাহিনী, সশস্ত্র পুলিশ বাহিনী, জাতীয় গোয়েন্দা বিভাগ এবং অস্থায়ী পুলিশ সহ প্রায় ৩,০০,০০০ নিরাপত্তা কর্মী দেশ জুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে।

এটা আশা করা হচ্ছে যে FPTS সিস্টেমের অধীনে ফলাফল কয়েক দিনের মধ্যে ঘোষণা করা হবে, যখন নির্বাচন কমিশন অনুসারে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্বের ভোট গণনা কিছু সময় লাগবে বলে আশা করা হচ্ছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in