করোনা মোকাবিলায় বিদেশনীতি বদল, প্রয়োজনে চীন থেকেও সাহায্য নিতে প্রস্তুত কেন্দ্র

বিদেশ থেকে সাহায্য নেওয়ার ক্ষেত্রে ১৬ বছরে এই প্রথম নীতি বদল করা হল
করোনা মোকাবিলায় বিদেশনীতি বদল, প্রয়োজনে চীন থেকেও সাহায্য নিতে প্রস্তুত কেন্দ্র
ফাইল ছবি

কোভিড পরিস্থিতির চাপে পড়ে নীতি বদল করতে হল কেন্দ্রীয় সরকারকে। বিদেশ থেকে সাহায্য নেওয়ার ক্ষেত্রে ১৬ বছরে এই প্রথম নীতি বদল করা হল। চলতি বছরের মার্চ মাসের শেষ থেকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে ক্রমশ মৃত্যু এবং আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। যত দিন যাচ্ছে পরিস্থিতি মানুষের উদ্বেগ বাড়িয়ে ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছে। হাসপাতালে বেড পাওয়া যাচ্ছে না, অক্সিজেন পাওয়া যাচ্ছে না, ওষুধও পাওয়া যাচ্ছে না। চারিদিকে হাহাকার পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার বিদেশ থেকে অক্সিজেন, ওষুধ এবং চিকিৎসার অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী আনতে চলেছে ভারত। সেগুলি বিদেশ থেকে উপহার, অনুদান হিসেবে সহায়তা নিচ্ছে কেন্দ্র।

সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, চিন থেকেও সাহায্য নিতে রাজি হল কেন্দ্র। গালওয়ান সংঘর্ষের পর সীমান্ত সমস্যা নিয়ে চিনের বিরুদ্ধে একাধিক পদক্ষেপ করেছিল ভারত। কিন্তু এবার চিন থেকে অক্সিজেন এবং অন্যান্য জীবন রক্ষাকারী ওষুধ কেনার ক্ষেত্রে ভারতের ‘কোনও সমস্যা নেই’ বলেই জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, সম্প্রতি চিন জানিয়েছিল বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় ভারত যদি বেজিংয়ের কাছে কোনওরকম সাহায্য চায়, তাহলে চিন সব রকম সাহায্য করতে প্রস্তুত। পাকিস্তানও সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছে।

তবে সূত্রের খবর, সেই সহায়তা নেওয়া হবে কিনা, তা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি দিল্লি। এর আগে উত্তরকাশী ভূমিকম্প (১৯৯১), লাতুর ভূমিকম্প (১৯৯৩), গুজরাট ভূমিকম্প (২০০১), পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণিঝড় (২০০২) এবং বিহার বন্যা (জুলাই ২০০৪) এর সময় বিদেশের সাহায্য নেওয়া হয়েছিল। ২০০৪ সালের ডিসেম্বরের সুনামির পরে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং বলেছিলেন, আমরা নিজেরাই পরিস্থিতি সামলাতে পারি বলে মনে করি। প্রয়োজনে আমরা বিদেশের সাহায্য নেব। তখন মনমোহন সিংয়ের ইউপিএ সরকার বিদেশ থেকে সাহায্য না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। সেই নীতির বদল হল এবার। এদিকে, রাজ্য সরকারও বিদেশি সংস্থার থেকে এই জীবনরক্ষামূলক ডিভাইস এবং ওষুধ সংগ্রহ করতে পারবে বলে জানা গিয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in