Earthquake: ভয়াবহ ভূমিকম্পের কবলে আফগানিস্তান, রেশ পড়ল পাকিস্তানেও! মৃত প্রায় ৯৫০

ভূমিকম্পের প্রধান উৎসস্থল ছিল দক্ষিণ-পূর্ব আফগানিস্তানের খোস্ত শহর থেকে ৪৪ কিলোমিটার দূরে। ভূ-কম্পনের উৎসস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৫১ কিলোমিটার গভীরে।
Earthquake: ভয়াবহ ভূমিকম্পের কবলে আফগানিস্তান, রেশ পড়ল পাকিস্তানেও! মৃত প্রায় ৯৫০
ছবি - আহমের খানের ট্যুইটার হ্যান্ডেল

ভয়াবহ ভূমিকম্পের জেরে কেঁপে উঠল আফগানিস্তান এবং পাকিস্তান। বুধবার ভোর রাতে ভয়াবহ কম্পন শুরু হয়। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৬.১।

সংবাদসংস্থা রয়টার্স এবং দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণ-পূর্ব আফগানিস্তানের পাকতিকা প্রদেশে শক্তিশালী ভূমিকম্পের জেরে কমপক্ষে প্রায় ৯৫০ জন নিহত ( বিবিসি সূত্রে) এবং ৬০০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে। এই ভূমিকম্পের প্রভাব পড়েছে সীমান্তবর্তী পাকিস্তানেও।

মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভের তরফে জানা যাচ্ছে, ভূমিকম্পের প্রধান উৎসস্থল ছিল দক্ষিণ-পূর্ব আফগানিস্তানের খোস্ত শহর থেকে ৪৪ কিলোমিটার দূরে। ভূ-কম্পনের উৎসস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৫১ কিলোমিটার গভীরে। ঘন জনবসতিপূর্ণ এলাকার কারণে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তালিবান সরকার পরিচালিত বাখতার সংবাদ সংস্থা মৃতের সংখ্যা জানিয়েছে এবং বলেছে উদ্ধারকারীরা হেলিকপ্টারে করে আসছে। বার্তা সংস্থার মহাপরিচালক আব্দুল ওয়াহিদ রায়ান টুইটারে লিখেছেন যে পাকতিকায় ৯০ টি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে এবং কয়েক ডজন লোক ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকা পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাকিস্তান সীমান্তের কাছে পাকতিকা প্রদেশের ফুটেজে দেখা গেছে ক্ষতিগ্রস্তদের হেলিকপ্টারে করে ওই এলাকা থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। প্রদেশ থেকে অনলাইনে ব্যাপকভাবে প্রচারিত ছবিতে ধ্বংসপ্রাপ্ত পাথরের বাড়িগুলি দেখানো হয়েছে, যেখানে বাসিন্দারা মাটির ইট এবং অন্যান্য ধ্বংসস্তূপের মধ্যে আটকে পড়েছেন৷

তালিবান সরকারের উপমুখপাত্র বিলাল করিমি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, "পাকতিকা প্রদেশের চারটি জেলা প্রবল এই ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে। যে ঘটনায় আমাদের শত শত দেশবাসীকে নিহত ও আহত হয়েছে এবং বহু ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে।" "আরো বিপর্যয় এড়াতে আমরা সমস্ত সাহায্যকারী সংস্থাকে অবিলম্বে এলাকায় উদ্ধারকারী দল পাঠাতে অনুরোধ করছি।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in