বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর দাবির বিস্তারিত তথ্য জানতে চেয়ে RTI কংগ্রেসের
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর দাবির বিস্তারিত তথ্য জানতে চেয়ে RTI কংগ্রেসের

মোদী বলেন, "বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ নেওয়া আমার জীবনের প্রথম আন্দোলনগুলির মধ্যে একটি ছিল। আমার বয়স তখন ২০-২২ বছর ছিল। তখন আমি গ্রেফতার হয়েছিলাম এবং কারাগারেও গিয়েছিলাম।"

দু'দিনের সফরে বাংলাদেশে গিয়ে গতকাল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে লড়াই করেছিলেন তিনি। এমনকি জেলেও যেতে হয়েছিল তাঁকে। কবে প্রধানমন্ত্রীকে গ্রেফতার করা হয়েছিল এবং কোন কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছিল, তথ‍্য অধিকার আইনের মাধ্যমে তা জানতে চাইল কংগ্রেস।

ঢাকায় বাংলাদেশের স্বাধীনতা ৫০ বছর এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, "আমি এখানকার তরুণ প্রজন্মের আমার ভাই ও বোনদের খুব গর্বের সঙ্গে একটি বিষয় স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ নেওয়া আমার জীবনের প্রথম আন্দোলনগুলির মধ্যে একটি ছিল। আমার বয়স তখন ২০-২২ বছর ছিল। আমি ও আমার অনেক সহকর্মী বাংলাদেশের মানুষের স্বাধীনতার জন্য সত‍্যাগ্রহ করেছিলাম। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সমর্থন করায় আমি গ্রেফতার হয়েছিলাম এবং কারাগারেও গিয়েছিলাম।"

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আরটিআই ফাইল করেছেন কংগ্রেসের আহ্বায়ক সরল প‍্যাটেল। গতকালই প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পাবলিক তথ্য আধিকারিকের কাছে আরটিআই ফাইল করেছেন তিনি। যেখানে প্রধানমন্ত্রীকে কবে গ্রেফতার করা হয়েছিল, এফআইআরের কপি, কোন কারাগারে বন্দী ছিলেন তিনি, সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানতে চেয়েছেন তিনি। আরটিআই ফাইলের একটা ছবি নিজের ট‍্যুইটারে পোস্ট করে তিনি লেখেন, "আমি জানতে খুব আগ্রহী, কোন ভারতীয় আইনের আওতায় তাঁকে (নরেন্দ্র মোদী) গ্রেফতার করা হয়েছিল এবং কোন কারাগারে রাখা হয়েছিল। আপনারা কী আগ্রহী নন?"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in